প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর আসগর আফগান।
প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পর আসগর আফগান। ছবি: আইসিসি

মাত্র এক সপ্তাহ। আর তাতেই দুই আফগানিস্তানকে দেখা হয়ে গেল জিম্বাবুয়ের। ২ মার্চ আবুধাবিতে শুরু প্রথম টেস্টটা শেষ হয়ে গিয়েছিল ৩ মার্চেই। দুই ইনিংস মিলিয়ে ২৬৬ রান করা আফগানরা হেরেছিল দুই দিনের মধ্যে। সেই আফগানিস্তান আজ আবুধাবিতেই শুরু দ্বিতীয় টেস্টে কিনা এক দিনেই করে ফেলল ৩০৭ রান! সেটিও মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে।

আফগানদের ঘুরে দাঁড়ানোয় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন অধিনায়ক আসগর আফগান। আফগানিস্তানের ছয় ম্যাচের টেস্ট ইতিহাসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংসটা আজ খেললেন আসগর আফগান। দেশের নামে নিজের নাম পাল্টে ফেলা আফগান দিনটা শেষ করেছেন ১০৬ রানে অপরাজিত থেকে।

আফগানের ১৩৫ বলের ইনিংসটি সাজানো ১২টি চার ও ২ ছক্কায়। অবিচ্ছিন্ন ১৮৬ রানের চতুর্থ উইকেট জুটিতে আফগানের সঙ্গী হাশমতউল্লাহ শহীদি অপরাজিত ৮৬ রানে। অধিনায়কের ঠিক উল্টো মেজাজেই ব্যাট করেছেন শহীদি। ৮৬ করতে খেলেছেন ২২৯ বল। চার অবশ্য অধিনায়কের সমান ১২টিই মেরেছেন শহীদি। এ ছাড়া ৭২ রান করেছেন দলটির ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান।

বিজ্ঞাপন

উইকেটের অবশ্য বড় ভূমিকা আছে আফগানিস্তানের ঘুরে দাঁড়ানোয়। প্রথম টেস্টে মোটামুটি সবুজ উইকেটের ফায়দা তুলেছিলেন জিম্বাবুইয়ান পেসাররা। এবার উইকেট অতটা সবুজ নয়।

টেস্টে আফগানিস্তানের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ

দিনের শুরুটা অবশ্য জিম্বাবুয়েরই ছিল। দ্বিতীয় ওভারেই আফগান ওপেনার জাভেদ আহমেদিকে তুলে নেন আগের ম্যাচে ৬ উইকেট নেওয়া পেসার ভিক্টর নিয়াউচি। প্রথম পানি পান বিরতির পর ফিরে দ্বিতীয় বলে তিন রান নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে জিম্বাবুয়েকে দ্বিতীয় উইকেট উপহার দেন তিনে নামা রহমত শাহ। আফগানিস্তানের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান ফেরেন ২৩ রানে।

default-image

মোটামুটি মন্থর উইকেটে এরপর ৬৫ রানের জুটি জাদরান ও হাশমতউল্লাহ শহীদির। লেগ স্পিনার রায়ান বার্লের বলে ডিফেন্স করতে গিয়ে এরপর প্রথম স্লিপে ক্যাচ দেন ১৩০ বলে ৭২ রান করা জাদরান। চার টেস্টের ক্যারিয়ারে তৃতীয়বার ৫০ পেরোনো জাদরানের ইনিংসটি সাজানো ৮টি চারে।

দিনের বাকি সময়টা শুধুই আফগানের আফগানিস্তানের। ৪২তম ওভারে উইকেটে আসা আসগর আফগান শহীদিকে নিয়ে ব্যাটিং করেছেন ৪৮ ওভার ১ বল। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চের মতো টেস্টে আফগানিস্তানের জুটির রেকর্ডেও তাতে নাম উঠে গেছে আসগর আফগানের। আফগান-শহীদির অবিচ্ছিন্ন ১৮৬ রান টেস্টে যেকোনো উইকেটেই দেশটির সর্বোচ্চ। আগের রেকর্ডটা ইহসানউল্লাহ ও রহমত শাহের। ২০১৯ সালে দেরাদুনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৯ রান করেছিলেন দুজন। আফগানিস্তান প্রথম টেস্ট জয়ও পায় সেই ম্যাচে।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন