দুই আফ্রিদি হচ্ছেন আত্মীয়।
দুই আফ্রিদি হচ্ছেন আত্মীয়।ছবি : টুইটার

শাহিন শাহ আফ্রিদির অভিষেকের সময় অনেকের মধ্যেই এই সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছিল।

বাঁহাতি এই পেসারের আবির্ভাবের আগে পাকিস্তান দলে ‘আফ্রিদি’ নাম নিয়ে সফলতা পেয়েছেন মাত্র একজন। তাই সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির সঙ্গে শাহিন শাহ আফ্রিদির কোনো আত্মীয়তার বন্ধন আছে কি না, শাহিন শাহের অভিষেকের সময় এই ব্যাপার নিয়ে অনেকের মধ্যেই সন্দেহ দেখা গিয়েছিল। পরে দেখা গেল, দুজনের মিল আছে গোত্রনামে। ব্যস, এতটুকুই। আত্মীয়তার বন্ধন নেই। এই ‘ব্যবধান’ এবার ঘুচিয়ে দিচ্ছেন দুই আফ্রিদি। শহীদ আফ্রিদির বড় মেয়ে আকসা আফ্রিদিকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন পাকিস্তান দলের এই বাঁহাতি পেসার। দুই আফ্রিদি বাঁধা পড়তে যাচ্ছেন আত্মীয়তার বন্ধনে।

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তানি মিডিয়ায় এই খবর সবার আগে ছড়িয়েছেন সাংবাদিক ইহতিশাম উল হক। টুইটারে নিজের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে লিখেছেন, ‘দুই পরিবারের অনুমতি নিয়ে একটা বিষয় পরিষ্কার করতে যাচ্ছি আমি, শহীদ আফ্রিদির মেয়ে ও শাহিন শাহ আফ্রিদির বাগদানের যে গুঞ্জন ছড়িয়েছে, সেটা সত্যি। বিয়ের প্রস্তাব এর মধ্যেই গৃহীত হয়েছে। জানা গেছে, আনুষ্ঠানিক বাগদানের অনুষ্ঠান আগামী দুই বছরের মধ্যে আয়োজন করা হবে। আফ্রিদির মেয়ের শিক্ষাজীবন শেষের পর।’

ইহতিশাম কেন আগ বাড়িয়ে এই খবর সবাইকে দিলেন, সেটার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন এই সাংবাদিক, ‘অনুগ্রহ করে দুই পরিবারের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানান। এই টুইট করার পেছনে কারণ, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যেন কোনো গুজব না ছড়ায়। তাঁরা নিজেরা কখন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন, সেটার অপেক্ষা করুন দয়া করে। এই মাহেন্দ্রক্ষণে তাঁদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তার প্রতি সম্মান জানানোর আহ্বান জানাচ্ছি সবাইকে।

শহীদ আফ্রিদির পাঁচ মেয়ের মধ্যে আকসা আফ্রিদি সবার বড়। বয়স ২০ বছর, শাহিন শাহ আফ্রিদির সমান। মামাতো বোন নাদিয়া আফ্রিদিকে বিয়ে করেছিলেন শহীদ আফ্রিদি। বাকি তিন মেয়ে আসমারা, আনশা, আজওয়া। মেয়েদের নিয়ে বেশ গর্বিত আফ্রিদি। নিজের আত্মজীবনীতেই মেয়েদের নিয়ে গর্ব করেছিলেন অনেক, ‘গত কয়েক বছরে চার মেয়ের বাবা হওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে আমার। সত্যি বলতে কি, একেকজনের জন্মের পর আমার ভাগ্যের চাকা আরও বেশি করে ঘুরেছে। বাবার কাছে মেয়েরা আশীর্বাদ। আমার কাছে ওদের সবাই আশীর্বাদের মতো।’ অবশ্য বই প্রকাশ হওয়ার পর আবারও আরেক কন্যাসন্তানের বাবা হয়েছেন এই সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক।

আরব আমিরাতের সংবাদমাধ্যম গালফ টুডে জানিয়েছে, আকসা আফ্রিদির জন্য প্রস্তাব গিয়েছিল শাহিন শাহ আফ্রিদির পরিবার থেকেই। শাহিন শাহের বাবা আয়াজ খান প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিলেন, সফল হয়েই ফিরেছেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

খবর ছড়ানোর পর টুইটার ব্যবহারকারীরা অভিনন্দনে ভাসিয়ে দিচ্ছেন দুই আফ্রিদিকে। একজন আবার পিএসএলে শাহিন শাহের বলে শহীদ আফ্রিদির বোল্ড হওয়ার ভিডিও পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘এখন বুঝছেন তো, কেন শাহিন শাহ এই উইকেট পাওয়ার পর কোনো উদ্‌যাপন করেননি?’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন