default-image

ঢাকায় সিরিজের প্রথম ওয়ানেডেতে বাংলাদেশের ব্যাটিং আশানুরূপ হয়নি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ১২২ রান করতে গিয়ে ১০৫ রানেই পড়ে যায় ৪ উইকেট। দ্বিতীয় ম্যাচে সেই সমস্যা কিছুটা হলেও কাটিয়ে ওঠা গেছে। ১৪৯ রান তাড়া করে জিততে বাংলাদেশ হারায় ৩ উইকেট। তবে টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের উইকেটে থিতু হয়েও আউট হয়ে যাওয়াটা মেনে নিতে পারছেন না বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। শেষ ম্যাচে তিনি চান ব্যাটিংয়ে আরও উন্নতি।

তামিমের আশা, তাঁর শহর চট্টগ্রামে একটি আদর্শ ম্যাচ খেলেই আজ জিতবে বাংলাদেশ দল। আদর্শ ম্যাচ অর্থ সব বিভাগেই ভালো খেলা। কাল জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে তামিম বলছিলেন, ‘আমাদের উন্নতির আরও অনেক জায়গা আছে। পুরোপুরি নির্ভুল ম্যাচ খুব কমই খেলা যায়। আমরা যেমন তিন বিভাগেই আরও উন্নতি করতে পারি। বোলিং আরেকটু ভালো করতে পারি, ফিল্ডিং ভালো করতে পারি। ব্যাটিংয়ে অনেকেই ভালো শুরু পেয়েও চালিয়ে যেতে পারছে না, কাজ শেষ করে ফিরতে পারছে না। এই জায়গাগুলোয় নিশ্চিতভাবেই আমাদের উন্নতি করতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিং–ফিল্ডিংয়ে তেমন কোনো খুঁতই ছিল না। পেসাররা নতুন বল কাজে লাগিয়েছেন দুই ম্যাচেই। হোম কন্ডিশনের সুবিধা নিয়ে প্রত্যাশিতভাবেই বাকি কাজটা করে দিয়েছেন স্পিনাররা। তারপরও আজ তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে অধিনায়ক তামিম চান আরও সহজ জয়, যেটা তাঁর ভাষায় আসা চাই ‘নির্ভুল’ এক ম্যাচ খেলে।

সে আশার কথা জানাতে গিয়ে প্রতিপক্ষের ব্যাপারে নিজের দলকে একটা সতর্কবার্তাও দিয়ে রাখলেন তামিম। বাংলাদেশ সিরিজ জিতে গেলেও আইসিসির ওডিআই সুপার লিগের ১০ পয়েন্টের জন্য ক্যারিবীয়রা যে শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবে, আগের দিনই সেটি জানিয়ে দিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের প্রধান কোচ ফিল সিমন্স। তামিম তাই বলছিলেন, ‘আমরা সিরিজ জিতে গেলেও আমাদের আরও ১০ পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ আছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম দুই ম্যাচে ততটা ভালো খেলতে পারেনি। তবে তারা বিপজ্জনক দল, যেকোনো সময় ঘুরে দাঁড়াতে পারে।’

default-image

এই সিরিজের পর সুপার লিগে কঠিন পথই পাড়ি দিতে হবে বাংলাদেশকে। বাংলাদেশের পরের সিরিজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডেরই মাটিতে, যেখানে বাংলাদেশের রেকর্ড বরাবরই খারাপ। আজ সিরিজের শেষ ম্যাচ জিতে পয়েন্ট তালিকায় আরও একটু এগিয়ে যাওয়ার সুযোগটা তাই হাতছাড়া করতে চান না তামিম, ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ এগিয়ে আসছে, সেখানে খেলতে হলে উন্নতি করেই যেতে হবে। সামনে দেশের বাইরেও খেলতে হবে আমাদের। ভিন্ন কন্ডিশনে কাজটা সব সময় কঠিন। এটা তাই নিশ্চিত করতে হবে, আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নামলে সব সময় যেন সবকিছু ঠিকঠাক করতে পারি।’

ওয়ানডে সুপার লিগের কারণে শেষ ম্যাচটির আলাদা গুরুত্ব থাকলেও এ ম্যাচের আগে দলে পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ দল। প্রথম দুই ম্যাচে উইকেটশূন্য থাকা রুবেল হোসেনের জায়গায় ফিরতে পারেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। অভিষেক হতে পারে মেহেদী হাসানের। তবে পরিবর্তন যা–ই হোক, সেটা যে দলের শক্তি কমাবে না, সেই নিশ্চয়তা দিয়েছেন তামিম নিজেই, ‘আমরা খুব অল্প কিছু পরিবর্তনই আনতে পারি দলে। তবে যারা আসবে, আমি নিশ্চিত তারাও ম্যাচ জেতাতে পারবে, অতীতে যখন সুযোগ পেয়েছে, ভালো করেছে। আমাদের ড্রেসিংরুমে ভালো খেলার তাড়না আছে, সবাই মাঠে নেমে ভালো করতে চায়। আশা করি, এই ধারাবাহিকতা চলতে থাকবে।’

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন