অসাধারণ একটি ইনিংস খেলার পুরস্কারও জিতেছেন রিংকু, হয়েছেন ম্যাচসেরা। ম্যাচ শেষে রিংকুই হাতে কত রান করবেন, তা লিখে আনার কথা বলেছেন রানাকে। একই সঙ্গে রিংকু ম্যাচ শেষে রানাকে বলেছেন, ম্যাচের আগে মনে হয়েছিল ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতবেন!

রাজস্থানের বিপক্ষে কত রান করবেন, সেটা হাতের তালুতে লিখে নিয়ে নামার কথাও তখনই বলেছেন রিংকু। ম্যাচ শেষে দুজনের কথোপকথনের সেই অংশটা নিজেদের টুইটারে পোস্ট করেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

default-image

রিংকু সেখানে রানাকে বলেছেন, ‘আমার মনে হয়েছিল আমি রান পাব এবং ম্যাচসেরা হব। আমি হাতের তালুতে ৫০ রান লিখে এনেছি এবং এর পাশে হৃদয়ও এঁকে রেখেছি।’ এটা শুনে রানা রিংকুকে প্রশ্ন করেন, ‘তুমি এটা কখন লিখেছ?’ রিংকুর উত্তর, ‘ম্যাচের আগে।’ রানার পাল্টা প্রশ্ন, ‘তুমি কীভাবে বুঝলে যে আজ রান পাবে?’

রানার এই প্রশ্নের উত্তরে রিংকু তাঁর পাঁচ বছরের একটি স্বপ্ন পূরণের গল্প বলেছেন, ‘ম্যাচসেরার পুরস্কার জয়ের এ বিষয় আমি অনেক দিন ধরেই লিখে আসছি। পাঁচ বছর পর এটা পেলাম। দেরিতে এসেছে, কিন্তু আমি পেয়েছি।’ পাঁচ বছর অপেক্ষার পর ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতলেও আইপিএলে প্রথম অর্ধশতকের স্বপ্ন এখনো পূরণ হয়নি রিংকুর। হয়তো সেটাও শিগগিরই পেয়ে যাবেন তিনি!

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন