রোহিত শর্মাকে বিশ্রাম দেওয়ায় কোহলির ওপর চটেছেন শেবাগ।
রোহিত শর্মাকে বিশ্রাম দেওয়ায় কোহলির ওপর চটেছেন শেবাগ। ছবি: এএফপি

ভারতের ক্রিকেটে অনেক দিন ধরেই গুঞ্জন—বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার মধ্যে দ্বন্দ্ব আছে। সর্বশেষ আইপিএলের পর গুঞ্জনটা আরও বেশি করে মাথাচাড়া দিয়েছিল। রোহিতের নেতৃত্বে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস আইপিএল জয়ের পর ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ও সমর্থকসহ অনেকেই দাবি তুলেছিলেন, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে কোহলিকে সরিয়ে রোহিতকে ভারতের অধিনায়ক করা হোক।

এ নিয়ে কোহলি কী ভাবছেন? এমন প্রশ্নও সে সময় ভারত অধিনায়ককে করা হয়েছিল। বিষয়টি হেসেই উড়িয়ে দিয়েছিলেন কোহলি। একই রকম প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছিলেন রোহিতও। কিন্তু কাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে রোহিত না থাকায় ভারতের ক্রিকেট মহলে আবারও কোহলি-রোহিত দ্বন্দ্ব নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। শুধু প্রথম টি-টোয়েন্টিতেই নয়, কোহলি জানিয়েছেন দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও বিশ্রাম দেওয়া হবে রোহিতকে।

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রথম ম্যাচের আগের দিনও সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেছিলেন, রোহিত আর লোকেশ রাহুলই ভারতের ইনিংস শুরু করবেন। কিন্তু টসের পর একাদশে রোহিতকে না দেখে বিস্মিত হয়েছেন ভারতের সমর্থক, সাবেক ক্রিকেটার, ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেটবোদ্ধারা। দারুণ ছন্দে থাকা অবস্থায় কেন রোহিতকে বিশ্রাম দেওয়া হলো—এমন প্রশ্ন সবার মুখে। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের টপ-অর্ডারের ব্যর্থতা এবং ২০ ওভারে মাত্র ১২৪ রান তোলার পর সমালোচনার তির আরও বেশি করে ছুটে যাচ্ছে কোহলির দিকে।

সমর্থকদের অনেকেই সামনে এনেছেন কোহলি-রোহিত সেই দ্বন্দ্বের প্রসঙ্গ। কাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কোনো রান না করেই আউট হওয়ার পরও ২ হাজার ৯২৮ রান নিয়ে এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি রানের মালিক কোহলি। ২ হাজার ৮৩৯ রান নিয়ে নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল আছেন দ্বিতীয় স্থানে। তৃতীয় স্থানে থাকা রোহিতের রান ২ হাজার ৭৭৩।

default-image

অবশ্য রোহিতকে বিশ্রাম দেওয়ার সমালোচনা সাবেক ক্রিকেটাররা করছেন ক্রিকেটীয় দৃষ্টিকোণ থেকেই। ক্রিকেট ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের এক লাইভ শোতে কথা বলতে এসে অজয় জাদেজা তো একপ্রকার রেগেই গেলেন। ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘কোনো ব্যাটসম্যানই ছন্দে থাকলে বিশ্রাম নিতে চায় না। খেলাটাই তো ছন্দের ওপর চলে। তাই ফর্মে থাকলে সব সময়ই আপনি ব্যাটিং করে যেতে চাইবেন।’
জাদেজা ‘ব্যাটিং’ করে যাবেন আর বীরেন্দর শেবাগ বসে থাকবেন তা কী করে হয়! লাইভ শোতে কোহলির বিরুদ্ধে পুল-হুক-ড্রাইভ খেললেন ভারতের সাবেক ওপেনারও। রোহিতকে বিশ্রাম দেওয়া নিয়ে কোহলিকে তাঁর প্রশ্ন, ‘এটা বলা হচ্ছে যে রোহিত শর্মা দুটি ম্যাচে বিশ্রাম নেবে। কিন্তু এই নিয়মটা কি কোহলির ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য? আমার মনে হয় না, একজন অধিনায়ক হিসেবে সে বলবে যে পরের দুটি ম্যাচে আমি বিশ্রাম নেব।’

বিজ্ঞাপন
default-image

বিশ্রাম নেবেন কি নেবেন না, সে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার রোহিতের বলেই মনে করেন শেবাগ, ‘অধিনায়ক যদি বিশ্রাম না নেয়, তাহলে সে অন্য কাউকে কীভাবে বিশ্রাম দেয়? এটা নির্দিষ্ট ওই খেলোয়াড়ের ওপর নির্ভর করে।’ টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত ছন্দে ছিলেন রোহিত। ৪ টেস্টের সিরিজে ভারতের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তিনি। শেবাগ বলেছেন, ‘চার টেস্টেই ভালো খেলা রোহিতের তো সাদা বলের ক্রিকেটে খেলতে মুখিয়ে থাকার কথা। এখানেও সে টেস্টের ফর্মটা নিয়ে আসতে পারত। টেস্ট ক্রিকেটে নিজের খেলাটা খেলার স্বাধীনতা অনেক সময় থাকে না। সাদা বলের ক্রিকেটে খেলোয়াড়েরা চার-ছক্কা মারতে চায়। নিজের আনন্দের পাশাপাশি দর্শকদেরও আনন্দ দিতে চায়।’

শেবাগের প্রশ্ন, রোহিত ফিরে আসার পর বিরাট কোহলি কি বিশ্রাম নেবেন? ‘তুমি যখনই ইচ্ছা চাইবে রোহিত, ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ শামি, জশপ্রিত বুমরাকে বিশ্রাম দেবে; আর নিজের বেলায় এই নীতি মানবে না!’—বলেছেন ভারতের সাবেক ওপেনার।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন