আইপিএলের সেরা একাদশে কারও জায়গা মিলেনি!
আইপিএলের সেরা একাদশে কারও জায়গা মিলেনি! ছবি: আইপিএল

৬০ ম্যাচের ৫৭টি হয়ে গেছে, বাকি আছে আর তিন ম্যাচ। প্রথম প্লে-অফে এরই মধ্যে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ানস খেলেছে দিল্লি ক্যাপিট্যালসের বিপক্ষে। কাল আরেক প্লে-অফে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু লড়বে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে। আজকের ম্যাচে হেরে যাওয়া দল রোববার তৃতীয় প্লে-অফে খেলবে কালকের ম্যাচের জয়ী দলের সঙ্গে। এরপর মঙ্গলবার ফাইনাল। এই তো, শেষ হয়ে যাচ্ছে এবারের আইপিএল!

শেষ হওয়ার আগে-পরে কিছু হিসাব-নিকাশ তো বাকি থাকে! শেষ পর্যন্ত কার ঘরে যাবে করতালি, সে পরের হিসাব। তার আগে এত দিনে কে ভালো খেলল, কে আশা পূরণ করতে পারল না, কোন ক্রিকেটার আলো ছড়িয়েছেন, আইপিএলের সেরা একাদশ কেমন হতে পারে...সেসব হিসাব হবে না!

প্লে-অফে তো শুধু চারটি দল খেলছে, গ্রুপ পর্বে ৫৬টি ম্যাচে আটটি দলই লড়েছে। একাদশ গড়ায় তাই গ্রুপ পর্বের পারফরম্যান্স বিবেচনায় নিলেই সব খেলোয়াড়ের জন্য ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ তৈরি হয়। গ্রুপ পর্বের পারফরম্যান্স বিবেচনায় নিয়েই নিজের মতো করে আইপিএলের সেরা একাদশ গড়েছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান চায়নাম্যান বোলার ব্র্যাড হগ। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে একাদশ ঘোষণা করেছেন। তবে কোহলি ও রোহিতের ভক্তদের জন্য দুঃসংবাদ, সে একাদশে জায়গা হয়নি কোহলি-রোহিতের।

বিজ্ঞাপন
default-image

এবারের আইপিএল টানা দুটি সেঞ্চুরিসহ দারুণ পারফরম্যান্স দেখেছে ভারতীয় ওপেনার শিখর ধাওয়ানের কাছ থেকে, সেঞ্চুরি করেছেন আরেক ভারতীয় ওপেনার লোকেশ রাহুলও। ১৪ ম্যাচে ৬৭০ রান নিয়ে রাহুল তো এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান করা ব্যাটসম্যানও। কিন্তু মজার ব্যাপার, ধাওয়ানের জায়গা হলেও হগের একাদশে রাহুলের জায়গা হয়নি!

রোহিত আর কোহলির জায়গা না পাওয়া অবশ্য আইপিএলের পারফরম্যান্স বিচারে তেমন চমকও নয়। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটের কারণে রোহিত বেশ কিছু ম্যাচে খেলতে পারেননি। আর কোহলি ব্যাট হাতে আলো ছড়াতে পারেননি, এখন পর্যন্ত ১৪ ম্যাচে করেছেন ৪৬০ রান।

default-image

ওপেনিংয়ে সে ক্ষেত্রে ধাওয়ানের সঙ্গে কাকে বেছে নিয়েছেন হগ? মায়াঙ্ক আগারওয়াল! ধাওয়ানকে নিয়ে হগের বিশ্লেষণ, ‘প্রথমে ব্যাট করতে আসবে শিখর ধাওয়ান। এ বছর কী দারুণ একটা সিরিজ কাটছে ওর! ১৪৬-এর ওপর স্ট্রাইক রেট, ৪৭-এর বেশি গড়, দুটি সেঞ্চুরিও পেয়েছে।’ আর আগারওয়ালকে রাখার কারণ? ‘ওর (ধাওয়ান) সঙ্গে ব্যাটিং উদ্বোধন করবে মায়াঙ্ক আগারওয়াল। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে ও যেভাবে খেলেছে, সেটা দেখতেই বেশ ভালো লেগেছে আমার। ও এমন না খেললে দলটা প্লে-অফে এত কাছেও আসতে পারত না!’

দুই ওপেনার তো হলো, ব্যাটিং অর্ডারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জায়গাটার জন্য কাকে বেছে নিচ্ছেন হগ? ‘তিনে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের সূর্য কুমার যাদব। ওর ব্যাটিং দেখতে ভালো লেগেছে। দারুণ স্ট্রাইক রেট ওর, ব্যাটিংয়ে বৈচিত্র্য আছে। ওর জন্য ফিল্ডিং সাজাতে বেশ ভুগতে হয় বোলারদের।’ তিন ভারতীয়র পর চার নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে ‘বিদেশি’ কোটার এক খেলোয়াড়কে নিয়েছেন হগ, ‘এই দলে প্রথম ভারতের বাইরের প্রথম খেলোয়াড় আসবে চার নম্বরে—আরসিবির (রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু) এবি ডি ভিলিয়ার্স। মিডল অর্ডারে দলের জন্য ওর অবদান অসাধারণ ছিল। ও না থাকলে আরসিবি সেরা চারেই থাকত না!’ বলেছেন হগ।

বিজ্ঞাপন
default-image

পাঁচ নম্বরেও থাকছেন ভারতের বাইরের আরেক ক্রিকেটার, ‘পাঁচ নম্বর ব্যাটসম্যান আসছে কলকাতা নাইট রাইডার্স থেকে। (টুর্নামেন্টের মাঝপথে) কেকেআরের অধিনায়কত্ব পেয়েছে ও। এউইন মরগানের কথা বলছি। কেকেআরের হয়ে দারুণ কিছু ক্যামিও ইনিংস খেলেছে ও, দলটাকে শেষ পর্যন্ত বাঁচিয়ে রেখেছে।’ ছয় নম্বরে ভারতের অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়াকে বেছে নিয়েছেন হগ, ‘আশা করি, ও বোলিং করতে পারবে। ফিল্ডার হিসেবে দারুণ ও। অ্যাথলেটিক। বিনোদন দেয় ওর খেলা। সে হচ্ছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের হার্দিক পান্ডিয়া। ২০০-র ওপর স্ট্রাইক রেট ওর, ছয় নম্বর ব্যাটসম্যানের কাছে এমনই তো চাইবেন আপনি!’

সাত নম্বরে সময়ের ক্রিকেটের গতিময় বোলারদের একজনকে বেছে নিয়েছেন হগ, ‘সাতে নামবে জফরা আর্চার। ২০ উইকেট নিয়েছে, ব্যাট হাতে স্ট্রাইক রেট ১৮৪। দারুণ দুটি ক্যামিও খেলেছে, রাজস্থান রয়্যালসকে টেনে নিয়ে এসেছে অনেকখানি।’ আর আটে? ‘রশিদ খান। ওকে দলের বাইরে রাখা যায় না! ব্যাট হাতে নেমে কিছু ক্যামিও ইনিংস খেলার সামর্থ্য আছে ওর। তবে বল হাতে অনেক উইকেট নিয়ে, প্রতিপক্ষের ওপর চাপ তৈরি করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে টুর্নামেন্টে টিকিয়ে রেখেছে ও।’ বাকি থাকে আর তিনটি জায়গা। সেখানে তিন ভারতীয়কেই পছন্দ হগের। দুই ফাস্ট বোলার—মোহাম্মদ শামি ও যশপ্রীত বুমরার সঙ্গে রাখছেন স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহালকে।
তা পারফরম্যান্স বিবেচনায় নাহয় কোহলি-রোহিতের জায়গা না হওয়া মানা যায়। কিন্তু রাহুল কেন একাদশে নেই? সে প্রশ্নে হগ কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন রাহুলের স্ট্রাইক রেটের কমতিকে।

ব্র্যাড হগের একাদশ
শিখর ধাওয়ান, মায়াঙ্ক আগারওয়াল, সূর্য কুমার যাদব, এবি ডি ভিলিয়ার্স, এউইন মরগান, হার্দিক পান্ডিয়া, জফরা আর্চার, রশিদ খান, মোহাম্মদ শামি, যশপ্রীত বুমরা ও যুজবেন্দ্র চাহাল।

মন্তব্য পড়ুন 0