বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টি-টোয়েন্টিতে এটাই জাম্পার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কোনো অস্ট্রেলিয়ানের সেরা বোলিং ফিগারও। টি-টোয়েন্টিতে এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো স্পিনার ৫ উইকেট নিতে পারেননি।

২০১৮ সালে দেরাদুনে রশিদ খানের ১২ রানে ৪ উইকেট নেওয়ার কীর্তি পেছনে ফেলে আজ প্রথম স্পিনার হিসেবে এ সংস্করণে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৫ উইকেটের দেখা পেলেন জাম্পা। যদিও এসব তথ্য দিয়ে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে জাম্পারের স্পিন-কামড়ের গভীরতা বোঝানো যায় না।

সপ্তম ওভারে বোলিংয়ে এসে আফিফ হোসেনকে তুলে নিয়ে বাংলাদেশের ইনিংসের শেষের শুরুটা করেছিলেন জাম্পা। বাংলাদেশ তখন ৬.১ ওভারে ৫ উইকেটে ৩৩। এরপর ১১তম ওভারে এসে টানা দুই বলে দুই উইকেট তুলে নেন—এবার শিকার শামীম হোসেন ও মেহেদী হাসান।

১১ ওভারের মধ্যে ৬২ রান তুলতে ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ তখন ধুঁকছে। এরপর ১৫তম ওভারে গিয়ে শেষও করেন জাম্পাই—এবারও দুই উইকেট তবে সেটি তিন বলের ব্যবধানে। টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন (৭৩) রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন