বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

তবে তৃতীয় ম্যাচ শুরুর আগে টিম শিটে দেখা যায়, উইকেটকিপার হিসেবে আছে নুরুলেরই নাম। পরে নুরুলই উইকেটকিপিং করেছেন। অবশ্য এদিন কোনো ক্যাচ বা রানআউট করতে পারেননি নুরুল। ম্যাচ শেষে বিসিবির দেওয়া ভিডিও বার্তায় ডমিঙ্গো জানিয়েছেন পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার কথা, ‘মুশির সঙ্গে কথা বলে পরিবর্তন এসেছে। শুরুতে দ্বিতীয় ম্যাচের পর তার কিপিং করার কথা ছিল। (তবে) মুশফিক আমাকে বলেছে, সে হয়তো টি-টোয়েন্টিতে ক্রিকেটে আর কিপিং করবে না। কাজেই এখন সোহান (নুরুল) আর লিটনকেই দায়িত্বটা পালনের দিকে নজর দিতে হবে।’

default-image

মুশফিকের এমন সিদ্ধান্তের পেছনে কারণ হিসেবে ডমিঙ্গো বলেছেন, ‘আমার মনে হয় না এ সংস্করণে মুশফিকের কিপিংয়ের সে আগ্রহটা আছে আর। এখন আমাদের সোহানের (নুরুল) দিকেই নজর দিতে হবে। তাকে দায়িত্বটা পালন করতে দিতে হবে।’
টেস্টে উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্ব মুশফিক ছেড়ে দিয়েছেন বেশ কিছুদিন হলো। ২০১৯ সালের পর এ সংস্করণে আর কিপিং করেননি তিনি। সে দায়িত্ব পালন করেন লিটন দাস।

শেষ জিম্বাবুয়ে সফর থেকে পারিবারিক কারণে আগেভাগেই দেশে ফিরেছিলেন মুশফিক। তাঁর বদলে ওয়ানডেতে লিটন ও টি-টোয়েন্টিতে উইকেটকিপিং করেছিলেন প্রায় তিন বছর পর জাতীয় দলে ফেরা নুরুল।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন