করোনায় আক্রান্ত ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মেলানিয়া ট্রাম্প।
করোনায় আক্রান্ত ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মেলানিয়া ট্রাম্প।ছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাসকে অবহেলা করার সুর তাঁর কণ্ঠে পাওয়া গেছে অনেক সময়। করোনা নিয়ে মানুষের ভয় কমাতেই হোক বা করোনাকে ভয়ংকর কোনো ভাইরাস মনে না করার কারণে, ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের অনেক দেশের নেওয়া পদক্ষেপের সঙ্গে তাল মেলাতে চাননি। নিজেই-বা কতটুকু মেনেছেন!

সেটিরই মাশুল হয়তো যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্টকে দিতে হচ্ছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে। আজ ট্রাম্প নিজেই টুইটে জানান, তিনি নিজে তো করোনায় আক্রান্ত হয়েছেনই, তাঁর স্ত্রী ও যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পও করোনায় আক্রান্ত। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই বিশ্বের অনেকেই তাঁকে শুভকামনা জানিয়েছেন, তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন। সেই তালিকায় যোগ দিয়েছেন বীরেন্দর শেবাগও। তবে ভারতের সাবেক ওপেনার ট্রাম্পকে শুভকামনা জানিয়েছেন মজা করেই!

বিজ্ঞাপন

কাল প্রথমে টুইটে ট্রাম্প জানান, নির্বাচনী প্রচারে তাঁর ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি হোপ হিকস করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। হিকস হোয়াইট হাউসে যোগাযোগ বিষয়ক পরিচালক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। এর আগে তিনি ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্বপালন করছিলেন। গত মঙ্গলবার হিকসকে ক্লিভল্যান্ডে কোনো মাস্ক না পরে বিমান থেকে নামতে দেখা গেছে। একদিন পরই মিনেসোটায় তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে ভ্রমণ করেন।

শুধু হিকসের সঙ্গেই নয়, সরকারি কর্মসূচিতেও ট্রাম্প কর্মকর্তাদের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতেন না। মাস্কও সব সময় পরতেন না। গত মাসে হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিককে মাস্ক খুলে প্রশ্ন করতে অনুরোধ করেছিলেন ট্রাম্প, যদিও সে সাংবাদিক তাতে রাজি হননি। ট্রাম্পও পরে তা মেনে নেন।
সেই ট্রাম্পের করোনা হওয়া হয়তো খুব বেশি আশ্চর্য হওয়ার মতো খবরও নয়!

হিকসের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার টুইটের ঘণ্টা দু-এক পর কাল ট্রাম্প আবার টুইটে লেখেন, ‘আজ রাতে আমি ও ফার্স্ট লেডি কোভিড-১৯ পজিটিভ প্রমাণিত হয়েছি। আমরা শিগগিরই কোয়ারেন্টিন ও আমাদের সেরে ওঠার প্রক্রিয়া শুরু করব। একসঙ্গেই এটা থেকে সেরে উঠব আমরা।’ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের চিকিৎসক সিন কনলি এক বিবৃতিতে জানান, ট্রাম্প ও মেলানিয়া দুজনেই ভালো আছেন। তাঁরা হোয়াইট হাউসেই থাকবেন বলে ঠিক করেছেন।

বিজ্ঞাপন

তা ট্রাম্পের করোনা হয়েছে শুনে অন্য অনেকের মতো শুভকামনা জানিয়েছেন শেবাগও। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হাস্যরসাত্মক টুইট করার চেষ্টা শেবাগের মধ্যে সব সময় দেখা যায়। ট্রাম্পকে শুভকামনা জানাতেও তা-ই করেছেন। হাতে-গলায় মালা, পাঞ্জাবির সঙ্গে হলুদ রঙের ধুতি পরে হাত উঁচিয়ে হাসিমুখে ছবি তুলে সেটি টুইটে দেন শেবাগ। বেশভূষায় একটা ‘সাধুবাবা’ ভাব আনার চেষ্টা আর কী! এই ছবি দিয়ে বিস্ফোরক ব্যাটিংয়ের জন্য বিখ্যাত সাবেক ভারতীয় ওপেনার টুইটে হিন্দিতে যা লিখেছেন, সেটির বাংলা অনেকটা দাঁড়ায় এ রকম, ‘কোভিডের সঙ্গে যুদ্ধে ট্রাম্পকে বাবা শেবাগের আশীর্বাদ। করোনা, বিদায় নাও।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযানের সময়েই করোনায় আক্রান্ত হলেন ট্রাম্প। এরই মধ্যে তাঁর ফ্লোরিডা সফর বাতিল হয়েছে। নির্বাচনী প্রচারে যুক্তরাষ্ট্রজুড়েই ভ্রমণে ব্যস্ত ছিলেন ট্রাম্প। করোনা সবচেয়ে বেশি আক্রমণ করেছে যুক্তরাষ্ট্রেই। এখন পর্যন্ত সেখানে প্রায় ৭৩ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছেন ২ লাখেরও বেশি!

মন্তব্য পড়ুন 0