বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে ইসিবির পক্ষ থেকে বলা হয়, বোর্ড অনিচ্ছা সত্ত্বেও অক্টোবরের (পাকিস্তান) সফর থেকে দুটি দলকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর কারণ হিসেবে বলা হয় ‘ওই অঞ্চলে সফরের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্ভূত শঙ্কার কথা’। বিবৃতিতে যোগ করা হয়, ‘অনেক দিন ধরেই কোভিড পরিস্থিতিতে থাকা দলকে আরও চাপে ফেলা হবে।’

default-image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হবে ১৭ অক্টোবর। এর প্রস্তুতি হিসেবে দুটি টি-টোয়েন্টি খেলতে চেয়েছিল দুই দল। এ সফর বাতিল করলেও ২০২২ সালের ভবিষ্যৎ সফরসূচি নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটের কাছে ইসিবি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে জানিয়েছে ইংল্যান্ড বোর্ড, ‘২০২২ সালে ছেলেদের ভবিষ্যৎ সফরসূচি নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রতি ইসিবি দীর্ঘদিন ধরেই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

বিবৃতিতে পাকিস্তান সফর বাতিলের পেছনে আরও একটি কারণ ব্যাখ্যা করেছে ইসিবি, ‘(জৈব সুরক্ষাবলয়ে থাকার চাপ) ছেলেদের টি-টোয়েন্টি দল নিয়ে অতিরিক্ত জটিলতা তৈরি করবে। এমন পরিস্থিতিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ প্রস্তুতি নিতে সেখানে সফর করা ঠিক আদর্শ সিদ্ধান্ত হয় না, যেখানে বিশ্বকাপে ভালো খেলাই সবচেয়ে প্রাধান্য পাচ্ছে।’

সফর বাতিল করে পিসিবির কাছে দুঃখও প্রকাশ করেছে ইসিবি, ‘আমরা বুঝতে পারছি, এ সিদ্ধান্ত পিসিবিকে হতাশ করবে। দেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে তারা নিরলসভাবে কাজ করছে। গত দুটি গ্রীষ্মে ইংলিশ ক্রিকেটকে তারা অনেক সাহায্য করেছে, যেটা বন্ধুত্বের পরিচায়ক। পাকিস্তান ক্রিকেটে এর যে প্রভাব পড়বে, সে জন্য আমরা সত্যি দুঃখিত।’

এর আগে গত শুক্রবার সফরের প্রথম ম্যাচ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে নিরাপত্তার শঙ্কায় পুরো সফর বাতিল করে দেশে ফিরে যায় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। তখনই প্রশ্ন উঠেছিল, নিউজিল্যান্ডের পথেই কি হাঁটবে ইংল্যান্ড? সফর বাতিল করে কিউইদের পথেই হাঁটল ইসিবি।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন