সেঞ্চুরি তুলে নেন তামিম
সম্প্রচার শেষ ২০ জুলাই ২০২১, ২১: ৫৯

তৃতীয় ওয়ানডে

জিম্বাবুয়েকে ধবলধোলাই বাংলাদেশের

১৩: ৪২, জুলাই ২০

টস জয় তামিমের

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

১৩: ৪২, জুলাই ২০

ফিরলেন মোস্তাফিজ, সঙ্গে নুরুল

দুটি পরিবর্তন আছে বাংলাদেশ দলে। প্রথম দুই ম্যাচে চোটের কারণে না খেলা মোস্তাফিজুর রহমান ফিরেছেন একাদশে। তিনি ফিরেছেন শরীফুল ইসলামের জায়গায়। বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে আগের ম্যাচে ৪ উইকেট পাওয়া এই বাঁহাতি পেসারকে।

দলে অন্য পরিবর্তন চোটের কারণে। আগের ম্যাচে নিজের বোলিংয়ে ফিল্ডিংয়ের সময় চোট পেয়েছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে এরপর ব্যাটিং করেছিলেন তিনি। আজ সতর্কতা হিসেবে খেলানো হচ্ছে না তাঁকে। তাঁর জায়গায় খেলানো হচ্ছে নুরুল হাসানকে।

১৩: ৪২, জুলাই ২০

বাংলাদেশ একাদশ

তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান

১৩: ৪৮, জুলাই ২০

জিম্বাবুয়ে একাদশ

জিম্বাবুয়ে দলেও দুটি পরিবর্তন। বাদ পড়েছেন তিনাশে কামুনহুকামওয়ে ও রিচার্ড এনগারাভা। ফিরেছেন রায়ান বার্ল ও ডোনাল্ড তিরিপানো।

ব্রেন্ডন টেলর, তাদিওয়ানাশে মারুমানি, সিকান্দার রাজা, রেজিস চাকাভা, টেন্ডাই চাতারা, লুক জঙ্গুয়ে, ওয়েসলি মাধভেরে, ব্লেসিং মুজারাবানি, ডিওন মায়ার্স, ডোনাল্ড তিরিপানো, রায়ান বার্ল

১৩: ৪৮, জুলাই ২০

কন্ডিশন

হারারে থেকে প্রতিনিধি:

আগের দিনের মতো আজও রোদ ঝলমল করছে হারারেতে। ক্রিকেটের জন্য 'পারফেক্ট কন্ডিশন' আজও।

১৩: ৪৮, জুলাই ২০

প্রিভিউ

দেশ থেকে কোনো এক নিকটাত্মীয় হোয়াটসঅ্যাপে হৃষ্টপুষ্ট এক গরুর ছবি পাঠিয়েছেন। সেটা দেখেই তাঁর মনে পড়ে গেল, ‘আরে, দেশে তো ঈদ এসে গেছে! কিন্তু জিম্বাবুয়েতে ঈদ কবে?’

ওই পেসারের মতো হারারেতে বাংলাদেশ দলের অনেক ক্রিকেটারের মুঠোফোনের অ্যালবামই এখন ভরে উঠেছে দেশ থেকে পাঠানো কোরবানির পশুর ছবিতে। সেসব ছবি দেখেই এখানে যা একটু ঈদের আমেজ পাচ্ছেন তাঁরা। নইলে হারারের ঈদ নিয়ে সবার অবস্থা ওই বোলারের মতোই।

পড়ুন তৃতীয় ওয়ানডের প্রিভিউ

১৩: ৪৮, জুলাই ২০

সাড়ে চার বছর পর ওয়ানডেতে নুরুল

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে ক্যারিয়ারের ২ ওয়ানডের সর্বশেষটি খেলেছিলেন নুরুল হাসান। এ সফরের প্রথম ওয়ানডেতে লিটন দাসের চোটে বদলি উইকেটকিপার হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন। আজ সাড়ে চার বছরেরও বেশি সময় পর নুরুল ওয়ানডে একাদশে সুযোগ পেলেন আরেকজনের চোটে। সতর্কতা হিসেবে খেলানো হচ্ছে না মিরাজকে। নুরুল শুধু ওয়ানডে দলে ফেরেননি, সামলাচ্ছেন উইকেটকিপিংয়ের দায়িত্বও।

১৪: ০৩, জুলাই ২০

চাকাভা: পাঁচ থেকে তিন, তিন থেকে এক এবং জিম্বাবুয়ের ওপেনিং জুটির ‘দুঃখভরা’ গল্প

প্রথমে ফ্লিক করলেন। মোস্তাফিজুর রহমান এরপর গেলেন অফস্টাম্পের বাইরে। রেজিস চাকাভা এবার করলেন ড্রাইভ। দুবারই হলো চার। চাকাভা ছন্দে আছেন নিশ্চিতভাবেই।

প্রথম ম্যাচে চাকাভা নেমেছিলেন পাঁচ নম্বরে। সে পজিশনে করেছিলেন ফিফটি। জিম্বাবুয়ের ব্যাটিংয়ে একমাত্র উজ্জ্বল দিক ছিল তাঁর ব্যাটিং-ই। পরের ম্যাচে ‘উন্নতি’ হলো তাঁর, এলেন তিন নম্বরে। করলেন ২৬ রান। তৃতীয় ম্যাচে চাকাভা এলেন ওপেনিংয়েই।

তাদিওয়ানশে মারুমানির সঙ্গে তাঁর ওপেনিং জুটিতে এখন পর্যন্ত উঠেছে ২৯ রান। ২০১৯ সালের পর থেকে ওপেনিংয়ে যা জিম্বাবুয়ের সর্বোচ্চ জুটি। ১৬ এপ্রিল ২০১৯ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের ওপেনিং জুটিতে উঠেছিল ৪৪ রান। ব্রায়ান চারির সঙ্গে সেদিনও ওপেনিংয়ে ছিলেন চাকাভাই!

default-image
১৪: ১৩, জুলাই ২০

এসেই ব্রেকথ্রু সাকিবের

সাকিবকে সুইপ করতে গিয়েছিলেন আগের বলে। ঠিকঠাক করতে পারেননি। তবে তাদিওয়ানশে মারুমানি করতে গেলেন আবারও। মোটামুটি ফুললেংথ থেকে সোজা হওয়া ডেলিভারি আঘাত করলো তাঁর প্যাডে, সাকিবের আবেদনে সাড়া দিতে সময় নেননি আম্পায়ার মারাইস এরাসমাস। ৯ম ওভারে প্রথম ব্রেকথ্রু পেল বাংলাদেশ, সাকিবের প্রথম ওভারেই। ৩৮ রানে জিম্বাবুয়ে হারাল প্রথম উইকেট।

১৪: ৪০, জুলাই ২০

মাহমুদউল্লাহর ২০০

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ২০০ ওয়ানডে খেলার কীর্তিটা করেছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এরপর সে তালিকায় যুক্ত হয়েছেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। হারারেতে আজ ৫ম বাংলাদেশী হিসেবে ২০০তম ওয়ানডে খেলতে নেমেছেন মাহমুদউল্লাহ।

মাইলফলকের দিনে একটা পুরোনো স্মৃতিও ফিরল মাহমুদউল্লাহর। তাসকিন আহমেদ-মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমানের পর দ্বিতীয় পরিবর্তিত বোলার হিসেবে এলেন তিনি। শেষ ২০১৮ সালে এতো আগে বোলিং করেছিলেন তিনি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেদিন করেছিলেন ৪ ওভার। এ ম্যাচে এখন পর্যন্ত অবশ্য করেছেন এক ওভারই।

default-image
১৪: ৪৬, জুলাই ২০

এগোচ্ছেন টেলর-চাকাভা

সাইফউদ্দিনের এক ওভারে ব্রেন্ডন টেলর মারলেন দুই চার। এর মাঝে প্রথম চারটি টেলরকে নিয়ে গেল একটা মাইলফলকে। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডেতে ১৫০০ রান হয়ে গেল তাঁর। কোনো প্রতিপক্ষের সঙ্গে টেলরের এর পরের সর্বোচ্চ রান ৭৭৬ (পাকিস্তান)।

সাকিব ব্রেকথ্রু দেওয়ার পর চাকাভার সঙ্গে এগোচ্ছেন টেলর। দুজনের জুটিতে এখন পর্যন্ত উঠেছে ৩৬ রান। ১৬ ওভারে ৭২ রান তুলেছে জিম্বাবুয়ে।

১৪: ৫৩, জুলাই ২০

বোলিংয়ে ফিরে উইকেট মাহমুদউল্লাহর

মাহমুদউল্লাহ বোলিংয়ে ফিরলেন, পেয়ে গেলেন উইকেটও। সেটিও ব্রেন্ডন টেলরের। জায়গা বানিয়ে খেলতে গিয়েছিলেন টেলর, তব মিড-অফ থেকে একটু পেছনে যাওয়া তামিম ইকবালের হাতে ধরা পড়েছেন। ৩৯ বলে ২৮ রান করেই ফিরলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক।

২০১৯ সালের পর ফেব্রুয়ারির পর এই প্রথম এ সংস্করণে কোনো উইকেট পেলেন মাহমুদউল্লাহ!

১৫: ০৮, জুলাই ২০

চাকাভার ফিফটি, জিম্বাবুয়ের ১০০ রান

মাহমুদউল্লাহর বলে সিঙ্গেল নিয়ে ফিফটি পূর্ণ করলেন রেজিস চাকাভা। ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি এটি তাঁর, সিরিজেই দ্বিতীয়। ইনিংসে এখন পর্যন্ত চারটি চার মেরেছেন তিনি। চাকাভার ফিফটির আগেই ১০০ রান পেরিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে।

১৫: ৩২, জুলাই ২০

মাহমুদউল্লাহর আরেকটি

‘ম্যান উইথ দ্য গোল্ডেন আর্ম’!

২০১৯ সালের পর আজই প্রথম ওয়ানডে উইকেট পেয়েছিলেন, মাহমুদউল্লাহ এবার পেলেন আরেকটি। নীচু হওয়া ডেলিভারিতে জায়গা বানিয়ে খেলতে গিয়ে স্টাম্পে বল ডেকে এনেছেন ডিওন মায়ার্স। ৩৮ বলে ৩৪ রান করে ফিরেছেন তিনি। ১৪৯ রানে তৃতীয় উইকেট হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে।

১৫: ৪২, জুলাই ২০

সফরে উইকেটের খাতা খুললেন মোস্তাফিজ

জিম্বাবুয়ে সফরে এটাই প্রথম ম্যাচ মোস্তাফিজুর রহমানের। ওয়েসলি মাধেভেরেকে তিনি তুলে নিলেন নিজের চিরায়ত বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে। তাঁর কাটার নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি মাধেভেরে। শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ নেন সাকিব। ৩২ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ে ৪ উইকেটে ১৬৪।

১৫: ৫২, জুলাই ২০

সেঞ্চুরি হলো না চাকাভার

৮৪ রান নিয়ে সেঞ্চুরির পথে এগোচ্ছিলেন রেগিস চাকাভা। দারুণ এক ডেলিভারিতে তাঁকে বোল্ড করেন তাসকিন আহমেদ। বাংলাদেশি পেসারের ফুল লেংথের বল তিনি ঠিক কী কারণে ব্যাকফুটে আড়াআড়ি খেলার চেষ্টা করলেন, তা তিনি–ই ভালো জানেন! ৩৫.১ ওভারে জিম্বাবুয়ে ৫ উইকেটে ১৭২।

১৬: ১৮, জুলাই ২০

আক্রমণাত্মক রাজা

শেষ দুই ওভারে হয়েছে চারটি বাউন্ডারি, চারটিই মেরেছেন সিকান্দার রাজা। এর আগে ২৫ বলে ১২ রান করলেও গিয়ার বদলানোর ইঙ্গিত দিচ্ছেন তিনি, ৩৪ বলে ৩০ রান এখন। ১০ ওভার বাকি থাকতে জিম্বাবুয়ের স্কোর ৫ উইকেটে ২০৪।

১৬: ৪০, জুলাই ২০

রাজার ফিফটি

প্রথম ২৫ বলে ছিল ১২ রান, ফিফটি করে রাজা নিলেন মাত্র ৪৯ বল। ক্যারিয়ারের ১৭তম ফিফটি এটি তাঁর। রায়ান বার্লের সঙ্গে তাঁর জুটিতে উঠেছে ৭২ রান। জিম্বাবুয়ের রান ৫ উইকেটে ২৪৫ রান, বাকি ৫ ওভার। তাসকিন, মাহমুদউল্লাহ ও সাকিব- তিনজনই শেষ করেছেন ওভার।

১৬: ৫২, জুলাই ২০

সাইফউদ্দিনের ঘটনাবহুল ওভারে ২২ রান

প্রথম দুই বলে ওয়াইড, এরপর সিঙ্গেল। সাইফউদ্দিন এরপর রায়ান বার্লের প্যাড তাক করে বলা করা শুরু করলেন, বার্ল সেগুলো পাঠালেন বাউন্ডারির বাইরে। দুই ছয়ের পর একটা ডাবলস হলো। সাইফউদ্দিন আবারও করলেন প্যাড বরাবর। আবারও ব্যাট চালিয়েছিলেন বার্ল, ফাইন লেগে বেশ খানিকটা দৌড়ে হাতে নিলেও ক্যাচটা রাখতে পারেননি সাকিব। সেটি পরে হয়েছে চার, সে চারে মাত্র ৩৮ বলে ফিফটি পূর্ণ হয়ে গেছে বার্লের। ৪৭তম ওভারে উঠেছে ২২ রান।

১৬: ৫৫, জুলাই ২০

অবশেষে ফিরলেন রাজা

মোস্তাফিজকে জায়গা বানিয়ে কাভারের দিকে খেলতে চেয়েছিলেন রাজা। তবে টাইমিং করতে পারেননি মোটেও। আকাশে উঠেছিল বল। পয়েন্টের দিকে ক্যাচ নিয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন। ৫৪ বলে ৫৭ রান করে ফিরেছেন রাজা, ভেঙেছে বার্লে সঙ্গে তাঁর ৮০ বলে ১১২ রানের জুটি।

১৭: ০৭, জুলাই ২০

এক ওভারে তিন উইকেট সাইফউদ্দিনের

সাইফউদ্দিনের যে ওভার শুরু হয়েছিল ছয় দিয়ে, সে ওভারই শেষ হলো তিন উইকেটে। রায়ান বার্ল প্রথম বলে অফস্টাম্পের বেশ বাইরে সরে গিয়ে টেনে মেরেছিলেন ছয়। তবে পরের বলটা অফস্টাম্পের বেশ বাইরে হলেও টেনে খেলতে চেয়েছিলেন বার্ল, লং-অনে ধরা পড়েছেন। ঠিক পরের বলেই ফুললেংথ থেকে ইনসাইড-এজে বোল্ড হয়েছেন ডোনাল্ড তিরিপানো। হ্যাটট্রিক বলটা টেন্ডাই চাতারা আটকেছিলেন, তবে শেষ বলে গিয়ে তিনিও হয়েছেন বোল্ড।

১৭: ০৯, জুলাই ২০

২৯৮ রানে থামল জিম্বাবুয়ে

শেষ পর্যন্ত ৩ বল বাকি থাকতে অল-আউটই হয়েছে জিম্বাবুয়ে, তবে জিম্বাবুয়ে গেছে ২৯৮ রান পর্যন্ত। মোস্তাফিজের স্লোয়ারে ধোঁকা খেয়েছেন ব্লেসিং মুজারাবানি, হয়েছেন বোল্ড।

৩৫তম ওভারে ১৭২ রান তুলতে ৫ উইকেট হারিয়েছিল তারা। তবে সিকান্দার রাজার পর রায়ান বার্লের দারুণ দুটি ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে জিম্বাবুয়ে। এ দুজনের জুটিতে উঠেছে ৮০ বলে ১১২ রান। রাজা-বার্ল, দুজনই করেছেন ফিফটি।

৪৯তম ওভারে ৩ উইকেট নিয়েছেন সাইফউদ্দিন, তবে এর আগেই তাঁর ওপর দিয়ে বয়ে গেছে ঝড়। ৮ ওভারে শেষ পর্যন্ত তিনি দিয়েছেন ৮৭ রান। ৩ উইকেট নিতে ৫৭ রান খরচ করেছেন এ ম্যাচ দিয়েই দলে ফেরা মোস্তাফিজ।

টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়া বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেকথ্রু দিয়েছিলেন সাকিব। জিম্বাবুয়ে ইনিংসের শুরুর দিকের হাইলাইটস ছিল রেজিস চাকাভার ইনিংস। ওপেনিংয়ে এসে আজ তিনি করেছেন ৯১ বলে ৮৪ রান। চাকাভার সে ইনিংসের পর বার্ল-রাজা বাংলাদেশকে ছুঁড়ে দিয়েছেন ২৯৯ রানের বড় এক লক্ষ্য।

২০১৯ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ এত রান তাড়া করে জিতেছিল বাংলাদেশ। এ ম্যাচ জিততে হারারেতে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানতাড়ার রেকর্ড গড়তে হবে বাংলাদেশকে।

১৮: ০৮, জুলাই ২০

সতর্ক শুরু বাংলাদেশের

তামিম ইকবাল খেলছেন ধীরলয়ে, ২৩ বলে করেছেন ১৪ রান। লিটন দাস এখন পর্যন্ত করেছেন সমানসংখ্যক বলে ১৯ রান। ৭ম ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৩৩ রান। তবে এখনও অবিচ্ছিন্ন ওপেনিং জুটি।

default-image
১৮: ১৩, জুলাই ২০

১৯ রানের ওভার, বাংলাদেশের ৫০ রান

প্রথম বলে ট্রিপল নিয়ে লিটন দাস স্ট্রাইক দিয়েছিলেন তামিমকে। তামিম এরপর তুললেন ঝড়। টেন্ডাই চাতারার এক ওভারেই উঠল ১৯ রান। প্রথমে পুল করে ছয়ের পর তামিম মেরেছেন দুটি চার- প্রথমটি পাঞ্চ করে, পরেরটি স্ল্যাশ করে কাভার পয়েন্ট দিয়ে। ২৮ বলে ৩০ রান হয়ে গেছে তামিমের। বাংলাদেশের স্কোরও পেরিয়ে গেছে ফিফটি।

১৮: ২২, জুলাই ২০

পাওয়ারপ্লে-তে ৫৭

প্রথম পাওয়ারপ্লে-তে বাংলাদেশ তুলেছে ৫৭ রান। অবিচ্ছিন্ন আছে তামিম-লিটনের জুটি। বিপরীতে জিম্বাবুয়ে প্রথম ১০ ওভারে তুলেছিল ৩৮ রান। হারিয়েছিল ১ উইকেট।

১৮: ৪০, জুলাই ২০

তামিমের ফিফটি

ফিফটি পূর্ণ করলেন তামিম ইকবাল। প্রথম ২৩ বলে করেছিলেন ১৪ রান, পরের ২৩ বলে করেছেন ৩৬ রান। সিঙ্গেল নিয়ে ক্যারিয়ারের ৫২তম ফিফটি পূর্ণ করলেন তিনি। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ অধিনায়ক মেরেছেন ৪টি চার, সঙ্গে দুটি ছয়।

১৮: ৪৩, জুলাই ২০

আলগা শটে ফিরলেন লিটন

উইকেটটা লিটন ছুঁড়েই এলেন। প্রথমবার বোলিং করতে আসা ওয়েসলি মাধভেরেকে অফস্টাম্পের বাইরে থেকে স্লগ সুইপ করতে গিয়েছিলেন লিটন। তবে টাইমিং হয়নি। টপ-এজড হয়ে ধরা পড়েছেন স্কয়ার লেগেই। ৩৭ বলে ৩ চারে ৩২ রান করে ফিরেছেন তিনি। তামিমের সঙ্গে তাঁর ওপেনিং জুটি ভেঙেছে ৮৮ রানে।

১৯: ০৪, জুলাই ২০

মুশফিককে ছাড়িয়ে সাকিব

৬৫৮১ রান নিয়ে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ওয়ানডে রান-সংগ্রাহকের তালিকায় দুইয়ে ছিলেন মুশফিকুর রহিম। সাকিব আল হাসান ছাড়িয়ে গেলেন তাঁকে। উইকেটে এখন বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি রান করা দুজন- তামিম ও সাকিব। দুজনের জুটিতে এখন পর্যন্ত উঠেছে ৩৫ রান। দুই বাঁহাতির বিপক্ষে দুই প্রান্তে দুই অফস্পিনার- সিকান্দার রাজা ও ওয়েসলি মাধভেরেকে দিয়ে টানা বোলিং করিয়ে নিচ্ছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেলর।

১৯: ০৯, জুলাই ২০
১৯: ২২, জুলাই ২০

ফিরতে হলো সাকিবকে

দুই অফস্পিনার সিকান্দার রাজা ও ওয়েসলি মাধভেরের পর লেগস্পিনার রায়ান বার্লকে এনেছিলেন ব্রেন্ডন টেলর। তবে ব্রেকথ্রু দিলেন এক পেসার- লুক জঙ্গুয়ে। অফস্টাম্পের বাইরের বলে ব্যাট চালিয়েছিলেন সাকিব, জিম্বাবুইয়ানদের কট-বিহাইন্ডের আবেদনে আঙুল তুলেছেন আম্পায়ার আইনো চাবি। সে সিদ্ধান্তে অবশ্য ঠিক সন্তুষ্ট হতে পারেননি সাকিব, চোখে মুখে হতাশা ছিল স্পষ্ট। ৪২ বলে ৩০ রান করেই ফিরতে হলো আগের ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের নায়ককে। তামিমের সঙ্গে তাঁর জুটি থামল ৫৯ রানেই।

১৯: ৩৯, জুলাই ২০

সেঞ্চুরি তামিমের 

চোটের কারণে এ সফরের একমাত্র টেস্টে খেলেননি। সে চোট দীর্ঘস্থায়ী। তবে তামিম বলেছিলেন, 'ম্যানেজ' করেই খেলবেন তিনি। সে চোট নিয়েই আজ করলেন সেঞ্চুরি।

টেন্ডাই চাতারাকে চার মেরে ক্যারিয়ারের ১৪তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পূর্ণ করলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। মাত্র ৮৭ বলেই মাইলফলকে গেলেন তিনি। গত বছর মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ওয়ানডেতে সর্বশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন তামিম।

ফিফটি করতে তামিমের লেগেছিল ৪৬ বলে। পরের পঞ্চাশ করতে লাগল ৪১ বল। অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর তামিমের এটি প্রথম সেঞ্চুরি।

১৯: ৫৯, জুলাই ২০

২০০ হলো বাংলাদেশের

৩৩.২ ওভারে ২০০ পূর্ণ হল বাংলাদেশের। সাকিব ফেরার পর মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে এগোচ্ছেন সেঞ্চুরি করা তামিম। দুজনের জুটি পেরিয়েছে ফিফটি।

২০: ০৮, জুলাই ২০

দুই বলে নেই তামিম-মাহমুদউল্লাহ

পানি-পানের বিরতি ছিল। সেটিতেই কিনা মনযোগে চিড় ধরল তামিমের। ডোনাল্ড তিরিপানোর বলে খোঁচা দিলেন, খেলতে চেয়েছিলেন থার্ডম্যানের দিকে। তবে ধরা পড়েছেন উইকেটের পেছনে।

৯৭ বলে ১১২ রান করে ফিরতে হলো তাঁকে।

ঠিক পরের বলে কট-বিহাইন্ড মাহমুদউল্লাহও। তিরিপানোর বলটা এবার নীচু হয়েছিল। মাহমুদউল্লাহ ব্যাট চালিয়ে হয়েছেন ইনসাইড-এজড।

২০: ৩২, জুলাই ২০

নুরুল-মিঠুন ভরসা দিচ্ছেন

লুক জঙ্গুয়েকে পরপর দুই বলে দুই চার মেরেছেন নুরুল। প্রথমে পুল করে, পরেরটি চিপ করে। এর আগে দারুণ এক পাঞ্চে মেরেছিলেন আরেকটি। তামিম ফিরলেও বাংলাদেশকে আশা জুগিয়ে যাচ্ছেন নুরুল, অন্যদিকে আছেন মিঠুন। শেষ ১১ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ৫৪ রান।

২০: ৪৯, জুলাই ২০

আরেকটি ফিফটি জুটি

মাহমুদউল্লাহ এক বল টিকেছেন, সে জুটিটাই তাই দেখেনি রানের মুখই। এ ছাড়া এখন পর্যন্ত চারটি জুটিই পেরোলো পঞ্চাশ। সর্বশেষটি নুরুল হাসান ও মোহাম্মদ মিঠুনের। পরপর দুই বলে তামিম-মাহমুদউল্লাহ ফিরলেও এ দুজন টানছেন বাংলাদেশকে। জয়ও এখন দৃষ্টিসীমায়। শেষ ৪২ বলে এখন প্রয়োজন ৩২ রান।

২০: ৫৬, জুলাই ২০

ধৈর্য ধরতে পারলেন না মিঠুন

স্কোরিংয়ের দায়িত্বটা নিয়েছিলেন নুরুল। তবে মিঠুন নিজেও কিছু করতে গেলেন। ওয়েসলি মাধভেরেকে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে ক্যাচ তুলেছেন তিনি। একেবারে সীমানার ওপর সেটি নিয়েছেন টেন্ডাই চাতারা। ৫৭ বলে ৩০ রান করে ফিরেছেন মিঠুন, ভেঙেছে নুরুলের সঙ্গে তাঁর ৬৪ রানের জুটি। শেষ ৬ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ৩০ রান।

২১: ১৭, জুলাই ২০

তামিমের সেঞ্চুরির পর নুরুলের ইনিংসে ৩-০ বাংলাদেশের

প্রথম ইনিংসেই বড় একটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছিল জিম্বাবুয়ে, ২৯৯ রানের লক্ষ্য দিয়ে। এ মাঠে রানতাড়ায় তৃতীয় সর্বোচ্চ স্কোর গড়তে হতো বাংলাদেশকে। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর এতো রান তাড়ায় ভাঙতে হতো নিজেদের রেকর্ডও। বাংলাদেশ করল সেসব।

লিটন দাসকে নিয়ে শুরুটা দারুণ করেছিলেন তামিম ইকবাল। ক্যারিয়ারের ১৪তম ও অধিনায়ক হিসেবে প্রথম সেঞ্চুরির পথে লিটনের পর সাকিব আল হাসান, মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়েও ফিফটি জুটি গড়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। অবশ্য তাঁর এবং ঠিক পরের বলে মাহমুদউল্লাহর উইকেট চাপে ফেলেছিল বাংলাদেশকে।

তবে সাড়ে চার বছর পর ওয়ানডে খেলতে নামা নুরুল সে চাপ একরকম উড়িয়েই দিয়েছেন। মোহাম্মদ মিঠুনের ধীরগতির ইনিংসেও তাই চাপ বাড়েনি আর। শেষ পর্যন্ত ৩৯ বলে ৪৫ রানে অপরাজিত ছিলেন নুরুল। শেষে আফিফ নেমে খেলেছেন ১৭ বলে ২৬ রানের অপরাজিত ইনিংস। লুক জঙ্গুয়েকে ছয়ের পর চার মেরে ম্যাচ শেষ করেছেন আফিফ। বাংলাদেশ জিতেছে ৫ উইকেটেই।

২০০৯ সালের পর বিদেশের মাটিতে প্রতিপক্ষকে প্রথমবার ধরলধোলাই বাংলাদেশ সম্পন্ন করেছে ২ ওভার বাকি থাকতেই।

এ জয় দিয়ে সিরিজে বিশ্বকাপ সুপার লিগের পুরো ৩০ পয়েন্টও পেল বাংলাদেশ। এক নম্বরে থাকা ইংল্যান্ডের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবধান এখন ১৫ পয়েন্টের।

২১: ৪৫, জুলাই ২০

এক যুগ পর বিদেশের মাটিতে ধবলধোলাইয়ের আনন্দ

প্রথম ম্যাচে লিটন দাস। দ্বিতীয় ম্যাচে সাকিব আল হাসান। তৃতীয় ম্যাচে তামিম ইকবাল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে তিন ম্যাচে বাংলাদেশি টপ অর্ডারে তিন ব্যাটসম্যানে কাছে এসেছে তিনটি বড় ইনিংস।

তাতে ভর করে বাংলাদেশ এক যুগ পর বিদেশের মাটিতে কোনো ওয়ানডে সিরিজে প্রতিপক্ষকে ধবলধোলাই করল। সর্বশেষ ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের মাটিতে ধবলধোলাই করেছিল সাকিব আল হাসানের বাংলাদেশ।

পড়ুন ম্যাচ রিপোর্ট