বিজ্ঞাপন
default-image

সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, খেলোয়াড়েরা এখনো ধর্মঘটের হুমকি দেননি। তাঁদের ‘বন্দুকের মুখে’ (ভীষণ চাপে) রাখা হয়েছে। শ্রীলঙ্কার সাবেক কোচ টম মুডি এখন বোর্ডের জাতীয় প্যানেলের সদস্য। তাঁর ওপর সবচেয়ে বেশি খেপেছেন ক্রিকেটাররা।

এই জাতীয় প্যানেলই পারফরম্যান্সভিত্তিক নতুন চুক্তির প্রস্তাব করেছে। ২৪ জন জাতীয় খেলোয়াড়ের প্রতিনিধি হিসেবে প্রেমাথিরত্নে বলেছেন, ‘অন্যায্য এবং অস্বচ্ছ চুক্তিপত্রে সই করতে বাধ্য হয় খেলোয়াড়েরা। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট যেন তাদের বন্দুকের মুখে না রাখে, সেই দাবি করেছে তারা।’

খেলোয়াড়দের একজন কথা বলেছেন এএফপির সঙ্গে। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) খেলোয়াড়দের জন্য প্রস্তাবিত বেতন–ভাতা কেমন হবে, তা জনসমক্ষে প্রকাশ করে নিয়ম ভেঙেছে বলে মনে করেন সেই খেলোয়াড়, ‘তারা আমাদের বেতন–ভাতা প্রকাশ করেছে। মুডি, অন্য অফিশিয়াল ও কোচদের কত দেওয়া হয়, সেটাও তাদের প্রকাশ করতে হবে, তাহলে লোকে বিচার করতে পারবে কোনটি যৌক্তিক।’

২০১৯ সালে ছাঁটাই হওয়া শ্রীলঙ্কার সাবেক কোচ চন্ডিকা হাথুরু সিংহেকে মাসে ৪০ হাজার ডলার করে বেতন দিয়েছে এসএলসি, এমন তথ্যও এসেছে সংবাদমাধ্যমে।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন