বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার হিসেবে দীর্ঘদিন ধরেই জনপ্রিয় ভোগলে। নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিক থেকেই তিনি পরিচিত হয়ে ওঠেন। ক্রিকেটে সম্প্রচারে বহুবার তাঁকে বহু জায়গায় যেতে হয়েছে। ইংল্যান্ডেও গিয়েছেন অগণিতবার। সেখানেই তিনি ক্রিকেটের বিখ্যাত মাঠ লর্ডসে বর্ণবাদের সম্মুখীন হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। টুইটারে তিনি লিখেছেন, লর্ডসে একসময় পেশাগত কারণে যেতে একেবারেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন না, ‘বর্ণবাদ সত্যিই বেদনাদায়ক একটা ব্যাপার। অনেক সময় এ ব্যাপারটিই খুব স্বাভাবিক বিষয়ে পরিণত হয়। আপাত সংবেদনশীল হর্তাকর্তারা অনেক সময়ই বর্ণবাদী আচরণ করে বসেন। কেউ হয়তো তাঁকে বাধাও দেন না। ভদ্রসমাজেও অনেক মানুষ অনেক কথা বলে ফেলে, যেগুলো বলতে তাঁকে কেউ কখনোই বাধা দেয়নি। আমি মনে করি, রফিকের অভিযোগগুলোর পর এগুলো বদলাবে। একটা সময় লর্ডস ছিল খুবই বাজে একটা জায়গা। সেখানকার লোকজন আপনাকে নিচু চোখে দেখত। এমন একটা ভাব দেখাত যেন সেখানে কাজের জন্য ঢুকতে দিয়ে তারা আপনাকে ধন্য করেছে।’

এসব ব্যাপার লর্ডসে নব্বইয়ের দশকের দিকে ঘটতে দেখেছেন বলে দাবি ভোগলের। এমনকি এ শতকের শুরুর দিকেও এসব ছিল। তবে হার্শা ভোগলে স্বস্তি নিয়েই বলেছেন, যে লোকগুলো লর্ডসে দাঁড়িয়ে বর্ণবাদী আচরণ করত, তাদের বেশির ভাগই এখন সেখানে নেই।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন