বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মাত্র ৭ বল খেলে ২৫ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা হন আসিফ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে আসিফের আজকের ইনিংসটি ২৫–এর বেশি রানের ইনিংসে স্ট্রাইক রেটের দিক থেকে তৃতীয় দ্রুততম।

default-image

আসিফের ব্যাটিংয়ে সুপার টুয়েলভ পর্বে টানা তিন ম্যাচ জিতে সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত করে ফেলল পাকিস্তান। এর মধ্যে টানা দুই ম্যাচেই দেখা গেল আসিফ–ঝলক। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও ১২ বলে ২৭ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন ৩০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

আজও ক্রিজে যখন এলেন, তখনই ম্যাচের অবস্থা অনেকটা একই ছিল। নিউজিল্যান্ডের ম্যাচের মতো আজও মারদাঙ্গা ব্যাটিংয়ে ম্যাচ শেষ করে আসার আত্মবিশ্বাস ছিল আসিফের।

ম্যাচসেরার পুরস্কার নিতে এসে আসিফ বলেছেন, ‘ম্যাচটা শেষ করে আসার আত্মবিশ্বাস ছিল। শোয়েব মালিক আউট হওয়ার আগে আমি এটাই তাঁকে বলছিলাম। আমি ম্যাচের অবস্থা দেখে সেই হিসেবেই বোলারকে টার্গেট করেছি। করিম জানাতের বোলিংয়ে ২০-২৫ রান নেওয়ার আত্মবিশ্বাস ছিল। আর আমি সেটাই করেছি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন