বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড থেকে শুরু করে পাকিস্তানের সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটাররা ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের ওপর।

এমন পরিস্থিতিতে প্রশ্ন উঠেছে, আগামী মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ পাকিস্তান বয়কট করবে কি না!

পাকিস্তানে বিভিন্ন মহলে দাবিও উঠেছে এ নিয়ে। অনেকেই মনে করছেন, যে পরিস্থিতিতে পাকিস্তানকে ফেলে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল দেশে ফিরে গেছে, তাতে তাদের সঙ্গে ক্রিকেটীয় সম্পর্কই রাখা উচিত নয়।

তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডে বিপক্ষে ম্যাচটি বয়কট করার কোনো পরিকল্পনা পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের নেই বলেই জানিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান।

এক সংবাদ সম্মেলনে ওয়াসিম বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে এই ধরনের কিছু করার কথা ভাবছে না পিসিবি। এটা কোনো ইস্যু নয়। ক্রিকেট-ভক্তদের প্রতি আমাদের একটা দায়িত্ব আছে। আমরা সেটি পূরণ করব।’

বয়কট না করলেও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটিতে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা ‘প্রতিবাদস্বরূপ’ কালো আর্মব্যান্ড হাতে লাগিয়ে খেলবেন কি না, এমন আলোচনাও এখন চাউর।

তবে ওয়াসিম সেটিও উড়িয়ে দিয়েছেন, ‘আসলে আমাদের ভাবনাটা পরিষ্কার হওয়া প্রয়োজন। এ ব্যাপারে সতর্ক থাকাও দরকার। আমাদের এমন কিছু করা উচিত নয়, যা রাজনৈতিক বার্তা বহন করে। যেকোনো ধরনের দৃশ্যমান প্রতিবাদও আমরা করব না।’

আগামী ২ অক্টোবর শারজায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। পিসিবি নির্বাহী বলেছেন, ‘যেভাবে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল পাকিস্তান সফর বাতিল করে চলে গেছে, সেটা পাকিস্তানের জন্য অবমাননাকর। এটাতে দুই ক্রিকেট বোর্ডের একধরনের উত্তেজনাও তৈরি হয়েছে।’

নিউজিল্যান্ডের পাকিস্তান সফরটি ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছিল। ২০০২ সালের পর এই প্রথম নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল পাকিস্তান সফর করছিল। এই সফরে নিউজিল্যান্ডের তিনটি টি-টোয়েন্টি ও পাঁচটি ওয়ানডে খেলার কথা ছিল। কিন্তু গত শুক্রবার রাওয়ালপিন্ডিতে প্রথম ওয়ানডের ঠিক আগে সফরটি বাতিল করা হয়।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল ‘সম্ভাব্য বড় নিরাপত্তা হুমকি’র কথা জানিয়ে সফর বাতিল করে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড এই ‘নিরাপত্তা হুমকি’টা কী, সেটি জানতে চাইলেও কিউইরা সেটি প্রকাশ করেনি।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন