বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রবি শাস্ত্রীর অধীনে কোহলিদের আগ্রাসী ক্রিকেট বিশ্বজুড়ে সমাদৃত হয়েছে ঠিকই। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট সিরিজও জিতেছে ভারত। কিন্তু বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে শাস্ত্রীর অধীনে ভারত ভালো করতে পারেনি। ২০১৯ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে বাদ পড়েছে, ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ফাইনালে উঠেও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে হেরেছে, এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও শুরুটা ভালো হয়নি ভারতের। পাকিস্তানের পর নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে কোহলিদের সেমিফাইনালে ওঠাই এখন হুমকির মুখে।

এই মুহূর্তে বিশ্বকাপে ভারত নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে খেলছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। সেই ম্যাচ চলার সময়েই এভাবে নতুন কোচ নিয়োগ দেওয়ার ঘোষণা চমকে দেওয়ার মতোই ব্যাপার!

আগামী দুই বছরে কয়েকটি দারুণ বহুজাতিক টুর্নামেন্ট আছে। সেখানে আমাদের সম্ভাবনা অনুযায়ী সাফল্য পেতে এই খেলোয়াড়দের সঙ্গে, দলের অন্য কোচদের সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।
আগামী দুই বছরে দুই বিশ্বকাপেই চোখ দ্রাবিড়ের

দ্রাবিড় অবশ্য দায়িত্ব নেওয়ার সময়ে শাস্ত্রীর অধীনে অনেক গুছিয়ে নেওয়া দলকেই আরও এগিয়ে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ‘মি. শাস্ত্রীর অধীনে দল দারুণ করেছে। এই দলকে নিয়েই কাজ করে দলটাকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই’—বিসিসিআইয়ের বিবৃতিতে বলেছেন দ্রাবিড়।

খেলোয়াড়ি জীবন শেষে কোচিংয়ে চলে আসা দ্রাবিড় এর আগে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে নিয়ে বিশ্বকাপে গেছেন। এরপর ভারতের জাতীয় ক্রিকেট একাডেমির দায়িত্বও নিয়েছেন। ভারতের মূল দলের দায়িত্বও অবশ্য নিয়েছেন। তবে গত আগস্টে যে ভারতীয় দলকে নিয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছিলেন দ্রাবিড়, সেটিকে দ্রাবিড়ের জাতীয় দলের দায়িত্ব সামলানোর অভিজ্ঞতা হিসেবে দেখাতে গেলে বিশেষ চিহ্ন দিয়ে দেখাতে হবে।

সে সময়ে শাস্ত্রীর অধীনে কোহলি-রোহিতদের নিয়ে গড়া ভারতের মূল দল ইংল্যান্ডে পাঁচ টেস্টের সিরিজে খেলছিল। দ্রাবিড় শ্রীলঙ্কায় ভারতের যে দল নিয়ে গিয়েছিলেন, সেটিকে শ্রীলঙ্কারই কিংবদন্তি অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গা বলেছিলেন ভারতের ‘বি’ দল!

default-image

সেটিকে আলাদা করে দ্রাবিড় দেখাচ্ছেনও না। বিবৃতিতে ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দল, ‘এ’ দল ও এনসিএতে বর্তমান ভারতীয় দলের অনেক খেলোয়াড়ের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতাকেই সামনে এনেছেন ৪৮ বছর বয়সী সাবেক ব্যাটসম্যান, ‘এনসিএ, অনূর্ধ্ব-১৯ এবং ভারতের ‘এ’ দলে এই ছেলেদের অনেকের সঙ্গে কাজ করার কারণে আমি জানি, ওদের প্রত্যেকেই খুব চায় প্রতিদিন আরও উন্নতি করতে।’

আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আছে, তার পরের বছর ভারতের মাটিতেই ওয়ানডে বিশ্বকাপ হওয়ার কথা। সে দুই টুর্নামেন্টসহ এমন আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টগুলোয় নজর দ্রাবিড়ের, ‘আগামী দুই বছরে কয়েকটি দারুণ বহুজাতিক টুর্নামেন্ট আছে। সেখানে আমাদের সম্ভাবনা অনুযায়ী সাফল্য পেতে এই খেলোয়াড়দের সঙ্গে, দলের অন্য কোচদের সঙ্গে কাজ করতে মুখিয়ে আছি।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন