বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

২০১৩ সাল থেকে বেঙ্গালুরুর অধিনায়কত্ব করছেন কোহলি। আইপিএলে এ ফ্র্যাঞ্চাইজি ছাড়া অন্য কোথাও খেলেননি। তবে আইপিএল শিরোপাটা অধরাই থেকে গেছে তাঁর। স্থগিত হয়ে যাওয়ার আগে অবশ্য এ মৌসুমে দারুণ ফর্মেই ছিল কোহলির দল। তবে পরের অংশের শুরুটা বেশ বাজে হয়েছে তাদের। কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ৯২ রানেই অলআউট হয়ে বড় ব্যবধানে হেরে সংযুক্ত আরব আমিরাত পর্ব শুরু করেছে বেঙ্গালুরু। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৩ নম্বরে আছে কোহলির দল।

ব্যাট হাতে নিজের সময়টাও সুবিধার যাচ্ছে না কোহলির। সর্বশেষ কলকাতার বিপক্ষে ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিনে ৪ বলে ৫ রান করেছেন। ১০ ওভারেই বেঙ্গালুরু স্কোর টপকে গেছে কলকাতা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতের সাবেক এক ক্রিকেটার আইএএনএসকে বলেছেন, ‘কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে তার খেলার ধরনটা দেখুন। দিশেহারা মনে হচ্ছিল তাকে। দেখে মনে হচ্ছে অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি ভুগছে সে। এমন হতেই পারে, মৌসুমের মাঝপথেই তাকে সরিয়ে দেওয়া হলো।’

মৌসুমের মাঝপথে আইপিএলে অধিনায়কত্ব বদল অবশ্য নতুন ঘটনা নয়। এর আগে কলকাতার দীনেশ কার্তিক, সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ডেভিড ওয়ার্নার দায়িত্ব ছেড়েছেন এমন। সাবেক সেই ক্রিকেটার টেনেছেন কার্তিক-ওয়ার্নারদের উদাহরণ।

default-image

তিনি বলছেন, কোহলির অধিনায়কত্ব ঝুলছে সুতার ওপর, ‘হয় তাদের (কার্তিক-ওয়ার্নার) সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, অথবা নিজে থেকেই সরে গেছে তারা। বেঙ্গালুরুর ক্ষেত্রেও এমনটা হতে পারে। গতকালের (২০ সেপ্টেম্বর) ম্যাচ দেখে এমনটা মনে হয়েছে আমার। আর একটা বাজে ম্যাচ হলেই দেখবেন বেঙ্গালুরুর অধিনায়কত্বে সঙ্গে সঙ্গেই পরিবর্তন আসবে।’

আগামীকালই চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে শারজায় নিজেদের পরের ম্যাচে নামবে বেঙ্গালুরু। ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আটটায়।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন