অনায়াস জয় পেয়েছেন মিলাররা।
অনায়াস জয় পেয়েছেন মিলাররা।ছবি: আইপিএল

পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই ম্যাচটাকে ওয়ানডে বানিয়ে ফেলেছিল রাজস্থান রয়্যালস। কলকাতা নাইট রাইডার্স ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১৩৩ রান তোলার পরই ম্যাচটা এক প্রকার শেষ হয়ে গিয়েছিল। রাজস্থান পাওয়ার প্লেতেই ৫০ রান তুলে সে চিন্তা পাকা করে তুলেছিল।

কলকাতার তরুণ দুই পেসার শীবম মাভি ও প্রসিধ কৃষ্ণ তবু হাল ছাড়েননি। গতি ও সিম মুভমেন্টে রাজস্থানের ব্যাটসম্যানদের আটকে রাখার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে ওভারপ্রতি মাত্র ৬ রান নিতে না পারা ব্যর্থতা এই আইপিএলে কলকাতা দেখালেও রাজস্থানের সে ইচ্ছা হয়নি। ৭ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখেই ম্যাচটা শেষ করে এসেছে মোস্তাফিজুর রহমানের দল।

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রথম পাঁচ ওভারের মধ্যে দুই ওপেনার জস বাটলার ও যশস্বী জয়সওয়াল ফিরে গেছেন। কিন্তু সেটা ম্যাচের ফলে কোনো ভূমিকা রাখেনি। অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন পরিস্থিতি বুঝে নিয়ে অযথা আক্রমণাত্মক হওয়ার চেষ্টা করেননি। বরং স্ট্রাইক বদলেই ইনিংসের গতি ধরে রেখেছেন। ওভার প্রতি ৮ করে রান তুলতে তবু অসুবিধা হয়নি।

১৫ রানের মধ্যে শীভম দুবে (২২) ও রাহুল তেওয়াতিয়ার (৫) আউট একটু আতঙ্ক জাগিয়েছিল। মাত্র ১ রানে থাকা ডেভিড মিলারকে এলবিডব্লুর সিদ্ধান্ত নিয়ে নাটক জমিয়ে তুলেছিলেন আম্পায়ার নবদ্বীপ সিং। কিন্তু রিভিউ নিতেই দেখা গেছে বল লেগ স্টাম্পের বাইরে পড়েছে। পঞ্চম উইকেট জুটিতে ম্যাচ শেষ করার পথে সেই মিলারই নেতৃত্ব দিয়েছেন। ৩৪ রানের জুটিতে ২৪ রান তুলেছেন ২৩ বলে ৩ চার মারা মিলার। অন্যপ্রান্তে ৪১ বলে ৪২ রানে অপরাজিত ছিলেন স্যামসন। তাঁর ইনিংসে ছিল ২ চার ও ১ ছক্কা।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন