শেষ পর্যন্ত ম্যাথুসকে ফিরিয়েছেন তাসকিন।
শেষ পর্যন্ত ম্যাথুসকে ফিরিয়েছেন তাসকিন। ছবি: এএফপি

দুই রিভিউর জায়গায় করোনাকালের ক্রিকেটে অধিনায়কেরা পাচ্ছেন তিন রিভিউ। কিন্তু বাংলাদেশ যেন রিভিউ না নিয়ে জমিয়ে রাখতেই পছন্দ করে। যার জন্য সম্প্রতি টেস্ট ক্রিকেটে চড়া মূল্যই দিতে হয়েছে বাংলাদেশকে। ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজের চট্টগ্রাম টেস্টের কথা কার না মনে আছে। সময়মতো রিভিউ নিলে হয়তো চট্টগ্রাম টেস্টের ফল ভিন্ন হতে পারত, সঙ্গে সিরিজের ফলও।

চট্টগ্রামে সেদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩৯৫ রানের বিশাল লক্ষ্য দিয়েও ম্যাচ জিততে পারেনি বাংলাদেশ দল। কাইল মেয়ার্স ও এনক্রুমা বোনারের কাছে হেরেছে ৩ উইকেটে। ৩১০ বলে ২০ চার ও ৭ ছয়ের মারে ২১০ রানের ইতিহাসগড়া ইনিংস খেলেন মেয়ার্স। অথচ সময়মতো রিভিউ নিলে ৪৭ রানেই ফেরানো যেত মেয়ার্সকে। ২৫ রানে রিভিউ না নেওয়ায় বেঁচে গিয়েছিলেন ইতিহাস গড়ায় মেয়ার্সের সঙ্গী বোনারও।

একই ভুল শ্রীলঙ্কা সিরিজেও করছে বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

পাল্লেকেলেতে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কান ওপেনার লাহিরু থিরিমান্নেকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেছিলেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তখন তিনি খেলছিলেন ৫৮ রানে। বাংলাদেশ আবেদন করলেও আম্পায়ার সাড়া দেননি। কিন্তু বাংলাদেশ রিভিউও নেয়নি। পরে দেখা গেছে রিভিউ নিলে আউট হতেন লঙ্কান ওপেনার।

কিছুক্ষণ পর অবশ্য ৫৮ রানেই থিরিমান্নেকে আউট করেন মেহেদী হাসান মিরাজ।
আজ দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলায় আরেকবার রিভিউর সুযোগ হাতছাড়া করে বাংলাদেশ। সদ্য উইকেটে আসা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে ভালো লেংথ থেকে বেরিয়ে যাওয়া বলে পরাস্ত করেন তাসকিন আহমেদ। বল উইকেটকিপার লিটন দাসের কাছে যাওয়ার আগে ম্যাথুসের ব্যাট ছুঁয়ে যায়।

default-image

কিন্তু বাংলাদেশের কোনো নড়চড় নেই। আম্পায়ারও অনড়। উইকেটকিপার লিটন মাথায় হাত দিয়ে যেন বলছিলেন, ‘ইশ্‌! একটুর জন্য।’ তাসকিনও আবেদন করেননি। অথচ টিভি রিপ্লেতে দেখা গেল বল ম্যাথুসের ব্যাট বেশ ভালোভাবেই ছুঁয়ে গেছে। ম্যাথুস তখন খেলছিলেন ০ রানে।

তাসকিন অবশ্য বড় ক্ষতি হতে দেননি। কিছুক্ষণ পর ৫ রানে আবারও কটবিহাইন্ড ম্যাথুস।

default-image

এবার লেংথ থেকে ভেতরে আসা বল প্রত্যাশা করে অপেক্ষায় ছিলেন ম্যাথুস। কিন্তু লেংথ থেকে বল যায় বেরিয়ে। অপ্রত্যাশিত মুভমেন্টে ব্যাট ছুঁইয়ে লিটনের গ্লাভসবন্দী হন লঙ্কান ব্যাটিং লাইনআপের সবচেয়ে অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।

ম্যাথুসের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ রিভিউ নিতে ভুল করলেও কেউই খুব বেশি ক্ষতি করেনি। কিন্তু মেয়ার্স-বোনারদের মতো বাংলাদেশের ভুলের সুযোগ নিয়ে তেতে উঠতে কতক্ষণ! আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বলে কথা। এমন এক ভুলে যে টেস্ট ম্যাচের চেহারা পাল্টে যেতে পারে, তা তো বাংলাদেশেরই ভালো জানার কথা।

বিজ্ঞাপন
ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন