বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দেশে ফেরার পর কাল এমআরআই পরীক্ষা করানো হয়েছে সাকিবের। তাতে বড় কোনো সমস্যা ধরা না পড়লেও চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তাঁকে আরও কিছুদিন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। আর তাতে বেশ বড় ধাক্কাই লাগল বাংলাদেশের টেস্ট দলে। সাকিবকে ছাড়াই সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের মুখোমুখি হতে হবে মুমিনুল হকের দলকে।

এর আগে সাকিবকে নিয়েই প্রথম টেস্টের জন্য ১৬ সদস্যের দল গড়ে বিসিবি। যদিও বলে দেওয়া হয়, তিনি দলের সঙ্গে যুক্ত হবেন ফিট থাকা সাপেক্ষে। শেষ পর্যন্ত শঙ্কাটাই সত্যি হলো। চট্টগ্রাম টেস্টে খেলা হচ্ছে না সাকিবের। সাকিব কত দিনে সুস্থ হয়ে ওঠেন, সেটাই এখন বড় চিন্তা।

default-image

নির্বাচকদের এখন একটাই চাওয়া, ৪ ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্টের আগে যেন সুস্থ হয়ে যান সাকিব। বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন আজ বলেছেন, ‘প্রথম টেস্টে সাকিবের খেলা হচ্ছে না। আপাতত সে ফিজিওর পর্যবেক্ষণে থাকবে। এই কয় দিনে কেমন উন্নতি হয় দেখি।’

বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে ব্যাট–বল হাতে ভালো করতে পারেননি সাকিব। তবে প্রথম রাউন্ডে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে উজ্জ্বল ছিলেন বাঁহাতি এ অলরাউন্ডার। ওমানের বিপক্ষে ৪২ রান করার পাশাপাশি ২৮ রানে নেন ৩ উইকেট।

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ৪৬ রান করে বোলিংয়েও ৯ রানে নেন ৪ উইকেট। শারজায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে পড়ে মাঠ ছাড়েন সাকিব।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন