বিজ্ঞাপন

মাইলফলকটা তাহলে আইপিএলেই ছুঁচ্ছেন সাকিব! সেখানেও হলো না। কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম তিন ম্যাচে পাওয়া ২ উইকেট সাকিবকে বসিয়ে রাখল ৯৯৯–এ। ৯৯৯–এ আটকে থেকে টানা চার ম্যাচ ডাগআউট থেকেই দেখতে হলো বাঁহাতি স্পিনারকে। এরপর তো যা করার করোনাই করল। স্থগিতই করতে হলো আইপিএল।

default-image

সেই অপেক্ষার পালা ফুরাল আজ। মিরপুরে প্রথম ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার কুশল মেন্ডিসকে আউট করে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বোলার হিসেবে স্বীকৃত ক্রিকেটে ১০০০তম উইকেট পেলেন সাকিব আল হাসান। তিন সংস্করনের স্বীকৃত ক্রিকেটে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে যে কীর্তি প্রথম গড়েছেন বাঁহাতি স্পিনার আবদুর রাজ্জাক (১১৪৫ উইকেট)।

স্বীকৃত ক্রিকেটে সাকিব আল হাসান প্রথম উইকেটটি পেয়েছিলেন ২০০৫ সালে ২০ ফেব্রুয়ারি জিম্বাবুয়ের বুলাওয়ের কুইন্স স্পোর্টস ক্লাবে। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের বোলার চার দিনের ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের ওপেনার ভুসিমুজি সিবান্দাকে এলবিডব্লু করে পেয়েছিলেন প্রথম উইকেট।

সাকিব বাংলাদেশসহ ২৫টি দলের হয়ে খেলেছেন প্রথম শ্রেণি, লিস্ট ‘এ’ ও স্বীকৃত টি–টোয়েন্টি। মোট উইকেটের অর্ধেকের বেশি উইকেট সাকিব পেয়েছেন বাংলাদেশের জার্সি গায়ে। বাংলাদেশের হয়ে তিন সংস্করণে এই বাঁহাতি স্পিনার পেয়েছেন ৫৬৯ উইকেট।

কোন সংস্করণে সাকিবের কত উইকেট

default-image

কোন দলের হয়ে কত উইকেট (শীর্ষ পাঁচ)

default-image

১১৩

সাকিবের সবচেয়ে প্রিয় প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। জিম্বাবুয়ে জাতীয় দলের বিপক্ষে ১১৩ উইকেট বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়কের।

কোন দলের বিপক্ষে কত উইকেট (শীর্ষ পাঁচ)

৩২১

সাকিব সবচেয়ে বেশি উইকেট পেয়েছেন ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। ৩২১ উইকেট পেয়েছেন সাকিব এখানে।

কোন ভেন্যুতে কত উইকেট (শীর্ষ পাঁচ)

১৩

default-image

সাকিব সবচেয়ে বেশি আউট করেছেন জিম্বাবুয়ের তিন ব্যাটসম্যান হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, এল্টন চিগুম্বুরা ও ব্রেন্ডন টেলরকে। এই তিনজনকে ১৩ বার করে আউট করেছেন সাকিব।

৫৩৮

সাকিব ব্যাটসম্যানদের ক্যাচ বানিয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট পেয়েছেন। ৫৩৭ জনকে ক্যাচ বানিয়েছেন সাকিব। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০৪ জনকে বোল্ড করেছেন সাকিব।

* সব পরিসংখ্যান ১০০০তম উইকেট পর্যন্ত।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন