ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানেডেতে বোলিং করেননি হার্দিক পান্ডিয়া।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানেডেতে বোলিং করেননি হার্দিক পান্ডিয়া। ছবি: এএফপি

সিরিজে ১-১ সমতা। পুনেতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আজ সিরিজনির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডে খেলতে নামবে ভারত। অধিনায়ক বিরাট কোহলি হয়তো ‘ফাইনাল’ জয়ের নানা রকমের ছক আঁকছেন। ভারতের ব্যাটসম্যান-বোলাররা হয়তো আগের ভুলগুলো শুধরে নিজেদের তৈরি করে নিচ্ছেন। কিন্তু ভারতের সাবেক ক্রিকেটাররা সামনে এগোতে পারছেন কই! ইংল্যান্ডের কাছে উড়ে যাওয়া দ্বিতীয় ওয়ানডেতেই এখনো আটকে আছেন সুনীল গাভাস্কার-বীরেন্দর শেবাগরা।

৩৩৬ রান করেও ৬ উইকেটে হারতে হয়েছে ভারতকে। তাও আবার ইংল্যান্ড জয় তুলে নিয়েছে ৩৯ বল বাকি থাকতে। এমন হার কিছুতেই মানতে পারছেন না ভারতের সাবেক ক্রিকেটাররা। অনেকেই অনেক কিছু বলেছেন। তবে গাভাস্কার-শেবাগের সব রাগ যেন দুই পান্ডিয়া ভাইয়ের ওপর। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হেরে যাওয়ার দায় আকারে-ইঙ্গিতে আগের দিন ক্রুনাল পান্ডিয়ার ওপরই চাপিয়েছেন ভারতের কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান। অলরাউন্ডার ক্রুনালকে ওই ম্যাচে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ব্যবহার করেছিলেন পঞ্চম বোলার হিসেবে।

বিজ্ঞাপন
default-image

কিন্তু বাঁহাতি স্পিনার ক্রুনাল সে দায়িত্ব পালন করতে একেবারেই ব্যর্থ। ৬ ওভারে ৭২ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকা ক্রুনালকে আর বোলিংয়েই আনেননি কোহলি। ক্রুনালের এমন বোলিং দেখে গাভাস্কার ভীষণ চটেছেন। ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান বিশ্লেষক সুনীল গাভাস্কার বলছেন, ক্রুনালকে পঞ্চম বোলার ধরে এগোতে চাইলে ভুল করবে ভারত। পঞ্চম বোলার হিসেবে তাঁকে খেলানোর কোনো কারণও দেখছেন না গাভাস্কার। ক্রুনালকে পঞ্চম বোলার ধরে এগোনাটা ভারত দলের ভুল হবে বলেই মনে করেন তিনি।

গাভাস্কার এ কথা বলার এক দিন পর শেবাগ আবার সমালোচনা করেছেন পান্ডিয়া ভাইদের ছোটজন আরেক অলরাউন্ডার হার্দিকের। দ্বিতীয় ম্যাচে বলই হাতে পাননি ভারতের মিডিয়াম পেসার। ম্যাচ শেষে অবশ্য কোহলিকে প্রশ্ন করা হয়েছিল—কেন পান্ডিয়াকে বোলিং করতে দেওয়া হয়নি? এর উত্তরে কোহলি বলেছিলেন, হার্দিকের চাপ কমাতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু শেবাগের কথা, ‘সে টেস্ট সিরিজে খেলেনি, শুধু টি-টোয়েন্টিতে বোলিং করেছে। তাহলে বেশি বোলিং করার চাপের বিষয়টা কীভাবে এল!’

default-image

হার্দিক পান্ডিয়ার সমালোচনা করতে গিয়ে ভারতের টিম ম্যানেজমেন্টের যেন একটু সমালোচনা করে নিয়েছেন শেবাগ, ‘সে যদি শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলে, তাহলে তার পারফরম্যান্স সেটার হিসাবেই বিচার করা হবে। কারণ, একজন অলরাউন্ডার হিসেবে কখনো কখনো আপনি সুবিধা নিতে পারবেন। যেমন যেদিন ব্যাট হাতে পারফর্ম করতে পারবেন না, সেদিন বল হাতে ভালো করবেন। কিন্তু সে যদি বোলিং না করে, তাহলে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে তার পারফরম্যান্স বিবেচনা করা হবে।’

দ্বিতীয় ওয়ানেডেত পান্ডিয়া বোলিং করলে খেলার মোড় অন্যদিকে ঘুরে গেলেও যেতে পারত বলে মনে করেন শেবাগ, ‘হার্দিক দু-তিনটা ওভার বোলিং করলে বোলিংয়ে একটু বৈচিত্র্য আসতে পারত। সে হয়তো একটা ব্রেক-থ্রু এনে দিলেও দিতে পারত।’

বিজ্ঞাপন
default-image

২০১৯ সালে পিঠে অস্ত্রোপচার হয়েছিল হার্দিক পান্ডিয়ার। এর জন্য কয়েক মাস তাঁকে মাঠের বাইরে থাকতেও হয়েছিল। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের হয়ে আইপিএল দিয়ে ক্রিকেটে ফেরা হার্দিক টুর্নামেন্টে খুব একটা বোলিং করেননি। এরপর তিনি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে খেলেছেন। কিন্তু মাত্র ৪ ওভার বোলিং করেছেন।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন