ব্যাট করতে নেমে ১ উইকেটে ৬০ রান তুলে আগের দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ। আজ জয়ের জন্য ৩৫১ রান দরকার ছিল, হাতে ৯ উইকেট। বড় লক্ষ্যের পেছনে ছুটতে গিয়ে দিনের শুরুতেই ওপেনার মোহাম্মদ সোহাগ আউট হন।

তবে তিনে নামা শাহরিয়ার সাকিব ও জিশান আলমের দৃঢ়তায় দিনের অনেকটা সময় পার করেছে বাংলাদেশ। সাকিব ২০২ বলে ১৩৪ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন। জিশানের ব্যাট থেকে এসেছে ৮১ রান।

বাংলাদেশ বাকি পথটা পার করেছে মোহাম্মদ শিহাবের ব্যাটে। ১৩০ বল খেলে অপরাজিত ছিলেন ৮৫ রানে। ৪৮ বলে ৮ রান করা মাহফুজুর রহমান সঙ্গ দেন শিহাবকে।

তাতে দিন শেষে বাংলাদেশ ৬ উইকেটে ৩৫৭ রান তুলে ম্যাচ ড্র করে। ম্যাচসেরা শিহাব। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের আগে লেগ স্পিনে নিয়েছেন ৪ উইকেট।
এর আগে পাকিস্তানের যুবাদের প্রথম ইনিংসে ২২৪ রানে অলআউট করেছিল বাংলাদেশ।

জবাবে মাত্র ১৬১ রানে থেমেছে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। পাকিস্তান নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৪৭ রান করলে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪১১ রান।
এই সফরে পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে তিনটি এক দিনের ম্যাচ ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

৪৫ ওভারের এক দিনের ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে ১০, ১২ ও ১৪ নভেম্বর। ১৬ ও ১৮ নভেম্বর মাঠে গড়াবে দুটি টি-টোয়েন্টি।