ক্রিকেটে দুটি বিশ্বকাপের শুরুটা ২০০৭ সালে। ওয়ানডে বিশ্বকাপ আছে সেই ১৯৭৫ সাল থেকেই, ৩২ বছর পর এসে যুক্ত হয় টি–টোয়েন্টিরও শিরোপা। এর পর থেকে গত ১৫ বছরে ৮টি টি–টোয়েন্টি এবং ৪টি ওয়ানডে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে একই সঙ্গে দুটি ট্রফি শোকেসে রাখতে পারার গর্ব শুধু ইংল্যান্ডেরই। ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতলে টি–টোয়েন্টি নয়, অথবা টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতলে ওয়ানডেতে নয়—এমনটাই হয়ে এসেছে এত দিন।

২০০৭ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া, কিন্তু ওই বছর কুড়ি ওভার ক্রিকেটের শিরোপা জেতে ভারত। ২০১০ সালে হওয়া টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন ছিল ইংল্যান্ড। পরের বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতে ভারত।

এভাবে টি–টোয়েন্টিতে এক দল, ওয়ানডেতে অন্য দল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে পরের বছরগুলোতেও। ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয় অস্ট্রেলিয়া, পরের বছরের টি–টোয়েন্টি জেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

২০১৯ সালে ঘরের মাঠে আয়োজিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড জেতার পর প্রথম টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হয়েছে গত বছর। সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত সেই আসরে জেতে অস্ট্রেলিয়া।

তবে পরবর্তী ওয়ানডে বিশ্বকাপ আসার আগে টি–টোয়েন্টির আরেকটি আসর হয়ে গেল এবার, যা জিতে এখন সাদা বল ক্রিকেটের দুটি বৈশ্বিক শিরোপার মালিক ইংল্যান্ড। নামের পাশে লেখা অনন্য অর্জন—ডাবল ওয়ার্ল্ড কাপ চ্যাম্পিয়ন!

যা আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠেয় ওয়ানডে বিশ্বকাপ ফাইনালের আগপর্যন্ত নিশ্চিতভাবেই থাকছে।