এসিবি জানিয়েছে, জাজাইয়ের জায়গায় দলে নেওয়া হয়েছে গুলবদিন নাইবকে। ৩১ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডারকে স্ট্যান্ডবাই তালিকায় রাখা হয়েছিল। তাঁর আফগানিস্তান দলে অন্তর্ভুক্তি অনুমোদন করেছে আইসিসি।

স্ট্যান্ডবাইয়ে থাকায় দলের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়াতেই ছিলেন নাইব। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের অধিনায়কত্ব করা নাইব সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন গত বছরের নভেম্বরে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। তবে জাজাইকে আফগানিস্তানে ফেরত পাঠানো হবে কি না, সে ব্যাপারে কিছু জানায়নি এসিবি।

আন্তর্জাতিক টি–টোয়েন্টি ইতিহাসে দ্বিতীয় ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ (অপরাজিত ১৬২) রানের ইনিংস উপহার দেওয়া জাজাইয়ের সময়টা ভালো যাচ্ছে না। শেষ ৫ ইনিংসে ১২.৬০ গড়ে করেছেন ৬৩ রান। মাত্র ৭৮.৭৫ স্ট্রাইক রেট স্বাভাবিকভাবেই টি–টোয়েন্টির দাবি মেটাতে পারেনি।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে ব্যর্থতাকে সঙ্গী করে অস্ট্রেলিয়ায় টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছেন জাজাই। ২৪ বছর বয়সী ওপেনার একটিমাত্র ম্যাচ খেলে করতে পেরেছেন ৭ রান। স্ট্যান্ডবাইয়ে নাইব ছাড়াও ছিলেন রহমত শাহ, শরফউদ্দিন আশরাফ ও আফসার জাজাই।

তবে নির্বাচকেরা নাইবের অভিজ্ঞতাকে মূল্যায়ন করেছেন বলে জানিয়েছেন আফগানিস্তানের প্রধান কোচ জোনাথান ট্রট। ঘরোয়া টি–টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট স্পাগিজা ক্রিকেট লিগেও ব্যাটে–বলে আলো ছড়িয়েছেন নাইব।

এ ছাড়া দলে রহমানউল্লাহ গুরবাজ, ইব্রাহিম জাদরান ও উসমান গনির মতো টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান থাকায় নতুন করে ওপেনার নেওয়ার বিষয়টি বিবেচনায় নেননি নির্বাচকেরা।

ব্রিসবেনের গ্যাবায় আগামীকাল সকালে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান। বৃষ্টিতে এ ম্যাচও পণ্ড হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।