সেরা হওয়ার দৌড়ে দুজনের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকলেও একজনের বাজে সময়ে আরেকজন তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন। ঠিকই ধরেছেন, কোহলির বাজে সময়ে তাঁর প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন পাকিস্তান অধিনায়ক।

ব্যাটিংয়ে বাজে সময় যাচ্ছে কোহলির। ২০১৯ সাল থেকে শতক নেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭৭ ইনিংস হয়ে গেল তিন অঙ্কে পৌঁছাতে পারেননি ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে চোটের কারণে খেলতে পারেননি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হাসেনি তাঁর ব্যাট। আউট হন ১৬ রানে। তার আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি টি–টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট মিলিয়ে মোট চার ইনিংসে কোহলির মোট সংগ্রহ ছিল ৪৩ রান।

এক সময় বলা হতো শচীন টেন্ডুলকারের রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারলে কোহলিই পারবেন, কিন্তু এই কোহলিকে দেখে সে কথাটা জোর দিয়ে বলার লোকসংখ্যা যে কমবে তা নিয়ে সন্দেহ নেই।

এ মাসের শেষ দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে পাঁচ ম্যাচ টি–টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ভারতের দলেও রাখা হয়নি কোহলিকে। বলা হচ্ছে, তাঁকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। বাজে ফর্মের জন্য তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে—কোহলির মাপের ব্যাটসম্যানের ক্ষেত্রে এমন কথা বলা বেশ কঠিনই।

তবে সামনে যেহেতু টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, কিছুদিন ক্রিকেটের বাইরে থেকে কোহলি তরতাজা হয়ে ফিরবেন, এমন পরিকল্পনা থেকেও তাঁকে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে। সে যাই হোক, কোহলির ব্যাটে রানখরা নিয়ে চারপাশে যেভাবে আলোচনা–সমালোচনা হচ্ছে, তাতে বাবর আর চুপ করে থাকতে পারেননি।

default-image

কাল রাতে টুইটটি করেন বাবর। হ্যাশট্যাগে কোহলির নাম সংযুক্ত করে পাকিস্তান তারকা লিখেছেন, ‘এই বাজে সময়ও কেটে যাবে। শক্ত থাকো।’ আইসিসির টুইটার পেজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের টুইটার পেজেও বাবরের এই টুইট শেয়ার করা হয়।

সেরাদের কাতারে নিজেকে ধরে রাখা কত কঠিন তা বাবরের চেয়ে ভালো আর কে জানে! তবে সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ ফর্মে আছেন পাকিস্তান অধিনায়ক। অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে শতক পেয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি–টোয়েন্টিতে পেয়েছেন অর্ধশতকের দেখা।

আইসিসির ওয়ানডে ও টি–টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে বাবর এখন শীর্ষে। টেস্টে চতুর্থ। বাবর খুব ভালোমতোই জানেন, সবার প্রত্যাশা পূরণ করে এমন ফর্ম ধরে রাখা কত কঠিন। কোহলিও তাঁর ক্যারিয়ারে এমন সময় পার করেছেন। এখন সে সময় খুঁজে ফেরায় তাঁর প্রতি সমর্থনের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বাবর।

রোহিত শর্মাও এর আগে সমর্থন জানিয়েছেন কোহলির প্রতি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের আগে তাঁর এই জাতীয় দল সতীর্থ বলেছেন, ‘দীর্ঘদিন কেউ ধারাবাহিকভাবে রান করার পর দু–একটা সিরিজ কিংবা দুই–এক বছর রান না পেলেও তাঁর অবদান অস্বীকার করা যায় না। বিরাট কোহলির গুরুত্ব আমরা জানি। বিশেষজ্ঞরা তার বাজে ফর্ম নিয়ে যা খুশি বলতে পারেন, কিন্তু আমাদের কাছে এসবের মূল্য নেই।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন