অক্টোবরে ৬ ইনিংসে ব্যাটিং করেছেন কোহলি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজে গুয়াহাটিতে অপরাজিত ৪৯ রানের ইনিংসের পর বাকি ৫টিতে কোহলি খেলেছেন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। মেলবোর্নে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতের দুর্দান্ত জয়ে কোহলি খেলেন স্মরণীয় এক ইনিংস।

১৫৯ রান তাড়ায় ৩১ রানেই ৪ উইকেট হারায় ভারত। কোহলি এরপর হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে গড়েন ৭৮ বলে ১১৩ রানের জুটি, যাতে পান্ডিয়ার অবদান ছিল ৩৭ বলে ৪০ রান। প্রায় হারা ম্যাচ থেকে ভারতকে বের করে আনতে মূল ভূমিকা পালন করেন কোহলি, ৫৩ বলে ৮২ রানের অপরাজিত ইনিংসে।

পাকিস্তানের সঙ্গে ম্যাচ দিয়ে দারুণ শুরুর পর কোহলির ভালো ফর্ম চলছেই। এরপর নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৪৪ বলে ৬২ রানের পর বাংলাদেশের সঙ্গে খেলেন ৪৪ বলে ৬৪ রানের আরেকটি অপরাজিত ইনিংস। সব মিলিয়ে অক্টোবরে কোহলি ব্যাটিং করেছেন ১৪৭.৫০ গড় ও ১৪৩.৯০ স্ট্রাইক রেটে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে ৯ নভেম্বর সিডনিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে ভারত।

মাস–সেরার পুরস্কার পেয়ে কোহলি বলেছেন, ‘অক্টোবরে আইসিসির ছেলেদের মাস–সেরার পুরস্কার পাওয়া আমার জন্য দারুণ সম্মানের। প্যানেল ও বিশ্বজুড়ে থাকা সমর্থকদের মাধ্যমে নির্বাচিত হওয়াটা আমার জন্য বিশেষ কিছু।’

পুরস্কার পাওয়া কোহলি প্রশংসা করেছেন তাঁর সঙ্গে মনোনয়ন পাওয়া রাজা ও মিলারেরও, ‘মনোনয়ন পাওয়া বাকিদের সম্মান জানাই, তারা এ মাসে অনেক ভালো পারফর্ম করেছে। একই সঙ্গে আমার সামর্থ্যের সর্বোচ্চটা দিতে সহায়তা করার জন্য সতীর্থদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা।’

অক্টোবরে মেয়েদের মাস–সেরা হন পাকিস্তানের নিদা দার। ভারতের জেমিমা রদ্রিগজ ও দীপ্তি শর্মাকে টপকে পুরস্কার জেতেন এ অলরাউন্ডার। গত মাসে মেয়েদের এশিয়া কাপে দার ৬ ম্যাচে ১৪৫ রান করেন ৭২.৫০ গড়ে। পাশাপাশি ১৪.৮৭ গড়ে নেন ৮ উইকেট।