মুম্বাইয়ের হয়ে আইপিএলে ১৮৯টি ম্যাচ খেলেছেন পোলার্ড। ৩৪১২ রান করার পাশাপাশি নিয়েছেন ৬৯টি উইকেট। ৩০০০ রান ও ৫০ উইকেটের ডাবল আইপিএলে পোলার্ড ছাড়া আছে শুধু শেন ওয়াটসনের। টুর্নামেন্টে পঞ্চম সর্বোচ্চ ২২৩টি ছক্কা মেরেছেন, ১৪ বার হয়েছেন ম্যাচসেরা। ২০১৩ আইপিএল ফাইনালে চেন্নাইকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো আইপিএল শিরোপা জেতে মুম্বাই, পোলার্ড ইডেন গার্ডেনে খেলেছিলেন ৩২ বলে ৬০ রানের অপরাজিত ইনিংস। সব মিলিয়ে পাঁচ বার আইপিএল শিরোপা জিতেছেন পোলার্ড।

প্রতি মৌসুমেই নিলামের আগে পোলার্ডকে এর আগে ধরে রেখেছে মুম্বাই। ২০২২ সালে প্রায় ৮ লাখ মার্কিন ডলার দাম দিয়ে তাঁকে রেখে দিয়েছিল আইপিএলের সফলতম দলটি। তবে গত মৌসুমটা মোটেও ভালো যায়নি তাঁর। ১১ ম্যাচে ১৪.৪০ গড় ও ১০৭.৪৬ স্ট্রাইক রেটে মাত্র ১৪৪ রান করেছিলেন। আইপিএলে পোলার্ডের সবচেয়ে বাজে মৌসুম ছিল সেটি।

মুম্বাইয়ের সঙ্গে দেওয়া যৌথ এক বিবৃতিতে আজ বিদায়ের ঘোষণা দিয়ে পোলার্ড বলেছেন, ‘আরও কয়েক বছর খেলতে চাই বলে সিদ্ধান্তটা সহজ ছিল না আমার জন্য। তবে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের সঙ্গে আলোচনার পর আইপিএলকে বিদায় বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ অসাধারণ ফ্র্যাঞ্চাইজিটি, যাদের অর্জন দুর্দান্ত, তাদের পালাবদলের দরকার, সেটি বুঝি আমি। আমি যদি মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের হয়ে না খেলি, তাহলে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষেও নিজেকে খেলতে দেখতে পারব না।’

পোলার্ড তাঁর বিবৃতিতে নতুন ভূমিকার কথাও জানিয়েছেন, ‘এটা মোটেও আবেগপ্রবণ বিদায় নয়। আমি আইপিএলে মুম্বাইয়ের ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব নিচ্ছি, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস আমিরাতের হয়ে খেলব। আমার ক্যারিয়ারের পরের অধ্যায়টা রোমাঞ্চকর। এটি আমার খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার থেকে কোচিংয়ের ক্যারিয়ারে পালাবদলে সহায়তা করবে।’

আগামী ২৩ ডিসেম্বর কোচিতে অনুষ্ঠিত হবে ২০২৩ সালের আইপিএলের নিলাম।