ঋষভ পন্ত যে আবার নিজের দুই পায়ে ভর করে দাঁড়াতে পারবেন, আবার ক্রিকেটে ফিরবেন—গত বছরের ডিসেম্বরে সেটাও ভাবতে পারেননি অনেকে। ডিসেম্বরে বড় রকমের এক গাড়ি দুর্ঘটনার শিকার হয়েছিলেন ভারতের উইকেটকিপার–ব্যাটসম্যান।

লম্বা সময় পন্তকে হাসপাতালে থাকতে হয়েছে। এবারের আইপিএলে খেলতে পারছেন না তিনি। এমনকি এশিয়া কাপ আর বছরের শেষ দিকে দেশের মাটিতে বিশ্বকাপও মিস করতে পারেন—এমন আলোচনা যখন চলছে, পন্ত নিজের সেরে ওঠা নিয়ে দিলেন ইতিবাচক বার্তা।

পন্ত মুখে কিছু বলেননি। বার্তাটি দিয়েছেন ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা একটি ভিডিওর মাধ্যমে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, পন্ত কোনো একটা জায়গা থেকে ক্রাচে ভর করে বের হচ্ছেন। ডান পায়ের নিচে ব্যান্ডেজের মতো কিছু একটা আছে আর তিনি ক্রাচে ভর করে আসছিলেন। একটি ক্রাচে ভর করে কয়েক পা হেঁটে এসে সামনে থাকা একজনকে ক্রাচটি ছুড়ে মারেন পন্ত। এরপর একটু খুঁড়িয়ে হেঁটে চলে যান। ভিডিওটির ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘ক্রাচের দিন আর নয়।’

ডিসেম্বরে গাড়ি দুর্ঘটনার পর এই প্রথম কোনো অবলম্বন ছাড়া হাঁটলেন পন্ত। এর আগে আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের নিয়মিত অধিনায়ক গত মাসে গুজরাট টাইটানসের বিপক্ষে তাঁর দলের ম্যাচের দিন গ্যালারিতে বসে খেলা দেখেছিলেন। এ ছাড়া দলের অনুশীলনও দেখতে গিয়েছিলেন তিনি।

ভয়ংকর গাড়ি দুর্ঘটনার পর ধীরে ধীরে সেরে উঠছেন ঋষভ পন্ত
ছবি: ইনস্টাগ্রাম

গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর হরিদ্বারে নিজের শহর রুর্কিতে যাওয়ার সময় গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়েন। দিল্লি–দেরাদুন মহাসড়কে রাস্তার ডিভাইডারে ধাক্কা খেয়ে তাঁর গাড়িতে আগুন লেগে গিয়েছিল। প্রথমে তাঁকে সেখানে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর সেখান থেকে তাঁকে নেওয়া হয় দেরাদুনের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে। পরে পন্তকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুম্বাইয়ে কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।