কাল সকালে নিজেদের ম্যাচ তো জিততে হবেই, তার আগে ভোরে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে হবে নেদারল্যান্ডসের। অথবা এই ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও চলবে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা জিতলে চেয়ে থাকতে হবে জিম্বাবুয়ের দিকে। জিম্বাবুইয়ানরা ভারতকে হারাতে পারলেই কেবল সেমিফাইনালে উঠতে পারে বাংলাদেশ-পাকিস্তান। সেখানেও আছে রানরেটের হিসাব।

তবে পাকিস্তান নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে দেওয়ায় রানরেট নিয়ে ভাবতে হচ্ছে না তাদের। কাল বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেরা জিতলে এবং দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারতের মধ্যে কোনো একটি দল ‘অঘটনের শিকার’ হলে শেষ চার নিশ্চিত হবে পাকিস্তানের।

শান মাসুদও জানেন, সেমিফাইনালের নাটাই এখন নিজেদের হাতে নেই। তবে বাংলাদেশকে হারিয়ে নিজেদের কাজটা সেরে রাখতে চান ৩৩ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান।
অ্যাডিলেডে আজ ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের প্রতিনিধি হয়ে আসা মাসুদ বলেছেন, ‘দলের ফোকাস এখন বাংলাদেশ ম্যাচের দিকে। দুই পয়েন্ট তুলে নেওয়াই আমাদের লক্ষ্য। শুধু এই বিষয়টা আমাদের হাতে আছে। গ্রুপের শেষ ম্যাচের শেষ বল না হওয়া পর্যন্ত আমরা আশাবাদী।’

নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচ হেরে খাদের কিনারে পৌঁছে গিয়েছিল পাকিস্তান। পরের দুই ম্যাচ জিতে অবশ্য টিকে থাকলেও সমীকরণ জটিল করে তোলার দায়টা নিজেদেরই দিচ্ছেন মাসুদ, ‘দুই ম্যাচ জিতলেও গ্রুপের শীর্ষ দুইয়ে আমরা নেই। হারগুলোর চরম মাশুল গুনতে হচ্ছে। জীবন আমাদের কঠিন শিক্ষা দেয়। এটা (হারগুলো) সেগুলোরই একটি।’

প্রথম দুই ম্যাচ হার সবার ঘুম কেড়ে নিয়েছে বলেও জানিয়েছেন মাসুদ, ‘দলের সবাই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিল। হার দুটি এতটাই প্রভাব ফেলেছিল যে ঘুম উধাও হয়ে গিয়েছিল। এরপর যেভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছি, সেটা দারুণ ব্যাপার ছিল।’

পাকিস্তানের মিডল অর্ডার অনেক দিন হলো ‘আতশি কাচের’ নিচে। বাবর আজম-মোহাম্মদ রিজওয়ান দ্রুত আউট হলেই পুরো ব্যাটিং লাইন আপ হুড়মুড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। অথবা শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হয়নি।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেই গেরো খুলেছে পাকিস্তান। ৪৩ রানের ৪ উইকেট হারানোর পরও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ১৮৫ রানের পাহাড় গড়েছে। পরের বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ম্যাচটা অনায়াসে জিতেছে।

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে পাওয়া আত্মবিশ্বাস বাংলাদেশের বিপক্ষে কাজে দেবে বলে বিশ্বাস মাসুদের, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা শুরুতে আধিপত্য করছিল। তবে আমরা দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছি। বোলাররাও অসাধারণ বোলিং করেছে। এমনকি বৃষ্টির পরও আমরা মোমেন্টাম ধরে রেখেছি। যখন আপনি ভুল থেকে শিখবেন, তখনই সেরাটা বেরিয়ে আসবে। দলের সবাই এখন চাঙা।’

বাংলাদেশকে হারিয়ে আগের ব্যর্থতাগুলো ভুলতে চান মাসুদ, ‘আমরা নিজেদের জন্য খেলি, দেশের জন্য খেলি এবং গৌরব বয়ে আনতে খেলি। কে কী করছে, সেদিকে তাকানোর দরকার নেই। মাঠে গিয়ে আমাদের শুধু সেরাটা দিতে হবে। আমরা সেটাই করতে চলেছি। আগে যেটা অর্জন করতে পারিনি, সেটা পুষিয়ে দিতে চলেছি।’