default-image

ক্রিকইনফো বলছে ২০২৩ থেকে ২০২৭ সাল-আইসিসির পরবর্তী দুই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের চক্রে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলবে ইংল্যান্ড (৪২)। এরপরই আছে অস্ট্রেলিয়া (৪১)। তিনে আছে ভারত (৩৮। মজার ব্যাপার আগামী চার বছরে আর মাত্র দুটি দেশ ৩০টির বেশি টেস্ট খেলবে। বাংলাদেশ এদের একটি। ৩৪টি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। আর নিউজিল্যান্ড খেলবে ৩২টি ম্যাচ!

ফাঁস হওয়া এফটিপি অনুযায়ী, ২০২৩ থেকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত চলা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রে বাংলাদেশ ছয়টি সিরিজ খেলবে। নিয়ম অনুযায়ী এর তিনটি ঘরের মাঠে, তিনটি প্রতিপক্ষের মাঠে। সূচি অনুযায়ী ২০১৯ সালের পর আবার ভারত সফর করবে বাংলাদেশ। এই চক্রে পাকিস্তানেও ঘুরে আসবে বাংলাদেশ। এ ছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর নিয়েও পরিকল্পনা করতে হবে বিসিবিকে।

default-image

আগামী টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের চক্রে ঘরের মাঠের সিরিজগুলো নিয়ে আশাবাদী হতেই পারে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডকে পাচ্ছে বাংলাদেশ। সে সঙ্গে শ্রীলঙ্কাকেও আতিথ্য দেবে তারা।

পরবর্তী চক্র বাংলাদেশকে ভুলে যাওয়া এক স্বাদ উপহার দিচ্ছে। টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট খেলে এসেছিল বাংলাদেশ। এর পর আর অস্ট্রেলিয়ার মাঠে টেস্ট খেলা হয়নি বাংলাদেশের। ২০২৫-২০২৭ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রে সে দুঃখ দূর হবে বাংলাদেশের। ভবিষ্যৎ সফরসূচিতে অস্ট্রেলিয়ার মাঠে টেস্ট আছে বাংলাদেশের। বাকি দুই সফর অবশ্য বাংলাদেশের অতি পরিচিত। দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার মাটিতে টেস্ট খেলতে যাবে বাংলাদেশ।

default-image

ঘরের মাঠে বাংলাদেশ এই চক্রে পাবে পরিচিত আরেক প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। পাকিস্তানও ২০২১ সালের পর আবার বাংলাদেশ ঘুরে যাবে। সে তুলনায় ২০১৬ সালের পর ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর বেশ আগ্রহের জন্ম দিচ্ছে।

চার বছরে চ্যাম্পিয়নশিপের বাকি আট দলের সঙ্গে টেস্ট খেললেও শীর্ষ চার দল অর্থাৎ ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একটি করে সিরিজ পাচ্ছে বাংলাদেশ। ওদিকে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুটি করে সিরিজ।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন