জগদিশানের এটি টানা পঞ্চম সেঞ্চুরি। এর আগে তিনজন টানা চারটি সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছিলেন—২০১৪-১৫ সালে কুমার সাঙ্গাকারা, ২০১৫-১৬ সালে আলভিরো পিটারসেন ও ২০২০-২১ সালে দেবদূত পাড়িক্কাল।

জগদিশান আজ ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন মাত্র ১১৪ বলে। ছেলেদের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এটি ট্রাভিস হেডের সঙ্গে যৌথভাবে দ্রুততম। ইনিংসে জগদিশান মেরেছেন ২৫টি চার ও ১৫টি ছক্কা। বিজয় হাজারে ট্রফিতে ১৫টি ছক্কাই এখন সর্বোচ্চ। এর আগের রেকর্ডটি ছিল যশস্বী জয়সোয়ালের (১২)।

তামিলনাড়ুর ব্যাটসম্যান জগদিশান ২৭৭ রান করেছেন ১৪১ বলে, মানে তাঁর স্ট্রাইক রেট ১৯৬.৪৫। ছেলেদের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি ইনিংসগুলোর ক্ষেত্রে এটিই সর্বোচ্চ এখন, আগেরটি ছিল ট্রাভিস হেডের। ২০২১ সালে কুইন্সল্যান্ডের বিপক্ষে সাউথ অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান ১২৭ বলে করেছিলেন ২৩০ রান, স্ট্রাইক রেট ছিল ১৮১.১। এখন পর্যন্ত ৩৬টি ডাবল সেঞ্চুরির মধ্যে আর কোনোটিতেই ব্যাটসম্যানের স্ট্রাইক রেট ১৭৫-এর ওপর ছিল না।

ছেলেদের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে দলীয় সর্বোচ্চ

জগদিশানের ওপেনিং সঙ্গী সাই সুদর্শন আজ করেছেন ১০২ বলে ১৫৪ রান, দুজনের ওপেনিং জুটিতে উঠেছে ৪১৬ রান। ছেলেদের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ৪০০ পেরোনো জুটির ঘটনাও এটিই প্রথম। এর আগের সর্বোচ্চ ছিল ২০১৫ সালে ক্রিস গেইল ও মারলন স্যামুয়েলসের, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

আর ছেলেদের লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে আগের দলীয় সর্বোচ্চ ছিল ইংল্যান্ডের। এ বছরই নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তারা তুলেছিল ৪ উইকেটে ৪৯৮ রান।