ছেলেদের আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে এটি সবচেয়ে কম বয়সে শতকের রেকর্ড। ৯ ছক্কা ও ৫ চারে ৬১ বলে ১০৯ রানের ইনিংস খেলেন ম্যাকেওন। ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ২০ বছর ৩৩৭ দিন বয়সে শতক তুলে নিয়েছিলেন আফগানিস্তানের ওপেনার হজরতউল্লাহ জাজাই।

ম্যাকেওন কাল শতক তুলে নেওয়ার আগপর্যন্ত জাজাই ছিলেন ছেলেদের আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান। জাজাইয়ের রেকর্ডটি শুধু নতুন করে লেখানোই নয়, ফ্রান্সের হয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে প্রথম শতকের রেকর্ডও এখন ম্যাকেওনের।

default-image

ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ড ক্রিকেট খেলে—এ তথ্যেই অনেকে অবাক হতে পারেন। জিনেদিন জিদান-লিলিয়ান থুরামরা যে বছর বিশ্বকাপ ফুটবল জিতলেন, সেই ১৯৯৮ সালেই আইসিসির সহযোগী দেশের মর্যাদা পায় ফ্রান্স। সুইজারল্যান্ড আইসিসির সহযোগী সদস্য পদ পেয়েছে গত বছর। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে ৫৩তম সুইজারল্যান্ড।

ক্যারিয়ারে এ নিয়ে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন ম্যাকেওন। এবারের বাছাইপর্বেই ‘বি’ গ্রুপ থেকে ২৪ জুলাই চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক অভিষেক ঘটে ম্যাকেওনের। সে ম্যাচেও ৫৪ বলে ৭৬ রানের দারুণ ইনিংস খেলে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। কাল অবশ্য জিততে পারেননি।

ম্যাকেওনের বিধ্বংসী ইনিংসের পরও ১ উইকেটে জিতেছে সুইজারল্যান্ড। ৫ উইকেটে ১৫৭ রান তুলেছিল ফ্রান্স। তাড়া করতে নেমে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৬ রান দরকার ছিল সুইসদের। আলী নায়ার ও অশ্বিন বিনোদ মিলে ম্যাকেওনের করা শেষ ওভার থেকে ১৬ রান তুলে নেন। জয়ের জন্য শেষ বলে ৪ রান দরকার ছিল। চার মেরে ম্যাচ জেতান ৪৮ রানে অপরাজিত থাকা আলী নায়ার।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন