টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সুপার টুয়েলভে কাল ভারতের কাছে ডি/এল নিয়মে ৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। এই জয়ে সেমিফাইনালে ওঠার পথ অনেকটাই প্রশস্ত করে ফেলেছে রোহিত শর্মার দল। জয়ের পর সংবাদমাধ্যম ‘ক্রিকবাজ’–এ সাকিবের সমালোচনা করেন শেবাগ। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেছিলেন, ‘আমরা এখানে বিশ্বকাপ জিততে আসিনি, ভারত এসেছে। কাল জিতলে সেটি হবে অঘটন। ভারতই ফেবারিট।’

সাকিবের এই কথার জের টেনেছেন শেবাগ। ভারতের বিপক্ষে সাকিব দায়িত্ব নিয়ে খেলেননি বলেই মনে করেন বিশ্বকাপজয়ী এই ওপেনার। ভারতের ১৮৪ রান তাড়া করতে নেমে ৭ ওভার শেষে বিনা উইকেটে ৬৬ রান তুলে ফেলেছিল বাংলাদেশ।

এরপর বৃষ্টি নামায় বন্ধ হয় খেলা। বৃষ্টি থামার পর খেলা পুনরায় শুরু হলে বাংলাদেশের লক্ষ্য নতুন করে নির্ধারণ করা হয়। ডি/এল নিয়মে জয়ের জন্য ১৬ ওভারে ১৫১ রান করতে হতো বাংলাদেশকে। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে ১৪৫ রানে থেমেছে বাংলাদেশের ইনিংস।

সাকিব তিনে ব্যাটিংয়ে নেমে ১২ বলে ১৩ রান করে আউট হন। বাংলাদেশ ৩০ বলে ৫২ রানে পিছিয়ে থাকতে ১২তম ওভারের প্রথম বলে আউট হন আফিফ হোসেন। সেই ওভারেরই পঞ্চম বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন সাকিব।

শেবাগ মনে করেন, সাকিবের তখন দায়িত্ব নিয়ে খেলা উচিত ছিল, ‘অধিনায়কের দায়িত্ব নেওয়া উচিত ছিল। শান্ত (আফিফ) আগে আউট হয়েছে, সাকিবও একই ওভারে আউট হয়েছে। তারা দ্রুত তিনটি উইকেট হারিয়েছে। অথচ একটা জুটি হলে...এমন নয় যে ৫০ রানের জুটি গড়তে হতো। টি–টোয়েন্টিতে ১০ বলে ২০ রানের জুটিও ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়।’

২৫ বলে ২১ রান করা নাজমুল হোসেন শান্ত আউট হন ১০ম ওভারের প্রথম বলে। মাঝে এক ওভার পর ১২তম ওভারে গিয়ে আফিফ ও সাকিবকে হারায় বাংলাদেশ। পরের ওভারেও হারিয়েছে জোড়া উইকেট। ইয়াসির আলী ও মোসাদ্দেক হোসেন আউট হন। অর্থাৎ চার ওভারের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ।

শেবাগ মনে করেন, সাকিবের উচিত ছিল কোহলির মতো শেষ পর্যন্ত খেলা। সেটি সাকিব যেহেতু করতে পারেননি, তাই তাঁর ‘অঘটন’ ঘটানো নিয়ে বড় বড় কথা বলা উচিত নয় বলেই মনে করেন ৪৪ বছর বয়সী সাবেক এই ওপেনার, ‘আমার মতে, অধিনায়ক ভুল করেছে। সে তো অভিজ্ঞ, কোহলির মতো দায়িত্ব নিয়ে শেষ পর্যন্ত খেলা উচিত ছিল। দলকে বিপদমুক্ত করা উচিত ছিল, সেটি যেহেতু পারেনি তাই ফালতু কথা বলা উচিত নয়।’

বৃষ্টি নামার আগে রান তাড়ায় ভালোভাবেই টিকে ছিল বাংলাদেশ। তখন ভারতের বোলাররাই চাপে ছিলেন। বৃষ্টিতে বন্ধ হওয়া খেলা পুনরায় শুরুর পর দ্রুত উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। খেলা শুরুর পর প্রথম ওভারেই রান আউট হন দুর্দান্ত ব্যাটিং করা লিটন দাস। ২৭ বলে ৬০ রান করা এই ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার পরই ম্যাচ থেকে ধীরে ধীরে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ।