সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে গতকাল ইংল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারিয়ে সিরিজই জিতে গেছে ভারত। তাতে ম্যান অব দ্য ম্যাচ ঋষভ পন্ত হয়েছেন, হওয়ারই কথা—২৬০ রানের লক্ষ্যে নেমে ৩৮ রানের মধ্যেই কোহলি, রোহিত আর ধাওয়ানকে হারিয়ে ফেলা ভারতের ব্যাটিংকে পথে ফিরিয়েছে তো পন্তের অপরাজিত সেঞ্চুরিই! তবে বলে-ব্যাটে আলো ছড়িয়ে নজর কেড়েছেন পান্ডিয়াও।

ইংল্যান্ডকে ২৫৯ রানে বেঁধে ফেলার পথে বল হাতে ইংলিশ ব্যাটিং অর্ডারের মাঝের দিকটা গুঁড়িয়ে দিয়েছেন পান্ডিয়া। জেসন রয়, বেন স্টোকস, জস বাটলার ও লিয়াম লিভিংস্টোনকে ফিরিয়েছেন, ৪ উইকেট নেওয়ার পথে ৭ ওভারে ৩ মেডেন নিয়ে দিয়েছেন মাত্র ২৪ রান। এরপর ব্যাট হাতে পন্তের সঙ্গে মিলে ভারতের জয় নিশ্চিত করায় পান্ডিয়ার ফিফটির অবদানও কম নয়।

default-image

দলীয় ৭২ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে সূর্যকুমার যাদব ফেরার পর ক্রিজে নেমেছেন, সেখান থেকে পন্তের সঙ্গে পঞ্চম উইকেটে পান্ডিয়ার ১১৫ বলে ১৩৩ রানের জুটিই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিয়েছে। জুটিতে পান্ডিয়ার অবদান? ৫৫ বলে ১০ চারে ৭১! যতক্ষণ ক্রিজে ছিলেন, শুরুতে পন্তকে ‘অ্যাঙ্কর রোল’ দিয়ে নিজে আগ্রাসনে ঝুঁকেছেন। জুটি থিতু হয়ে যাওয়ার পরই পন্ত আগ্রাসন শুরু করেছেন।

এর আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও এক ম্যাচে ৪ উইকেট নেওয়ার পাশাপাশি ফিফটি করেছেন। ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও বলে-ব্যাটে কিছুটা আলো ছড়িয়েছেন। ওয়ানডে সিরিজের সেরা খেলোয়াড়ও পান্ডিয়াই।

default-image

তবে কাল চার উইকেট আর ফিফটিতে বেশ কয়েকটি কীর্তি হলো পান্ডিয়ার। যার একটিতে পাশে পাচ্ছেন বাংলাদেশের সাকিবকে। কোনো এক দলের বিপক্ষে তাদেরই মাটিতে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে ইনিংসে ৪ উইকেট পাওয়ার কীর্তি সাকিব গড়েছেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, পান্ডিয়ার সে কীর্তি হলো ইংল্যান্ডে।

এ তো গেল বোলার পান্ডিয়ার কীর্তি, অলরাউন্ডার পান্ডিয়া একটা কীর্তিতে নাম লিখিয়েছেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজের পাশে। কীর্তিটা টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে একই ম্যাচে পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস ও চার বা তার বেশি উইকেটের। আর হিসেব যদি হয় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে প্রতিপক্ষের মাঠে একই ম্যাচে পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস ও ৪-এর বেশি উইকেটের, ভারতের হয়ে সে কীর্তিতে পান্ডিয়া অনন্য। কীর্তিগুলো এবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাউদাম্পটনের টি-টোয়েন্টি আর গতকালের ওয়ানডেতেই গড়েছেন পান্ডিয়া!

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন