default-image

কোহলির ফর্মহীনতা যেন দ্রুত কেটে যায়, সে জন্য শুভকামনা জানিয়ে পোস্ট দিয়েছেন বাবর। প্রতিবেশী দুই বৈরী দেশের মানুষের মন গলে গেছে তাতেই। বাবরকে স্যালুট জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লেখালেখি করছেন অনেকে।

কিন্তু যাঁকে নিয়ে বাবরের এই পোস্ট, সেই কোহলিই নিশ্চুপ। না বাবরের পোস্টের মন্তব্যের ঘরে, না আলাদা করে পোস্ট দেওয়ার মাধ্যমে—কোনোভাবেই বাবরের পোস্টের জবাব দেননি কোহলি। আর এটাই ভালো লাগছে না পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির। তাঁর কাছে মনে হয়েছে, বাবরের এই অসাধারণ কাজের জবাব দেওয়া উচিত ছিল কোহলির।

সামা নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আফ্রিদি বাবরকে যথারীতি প্রশংসায় ভাসিয়েছেন, ‘ক্রিকেট হোক বা অন্য কোনো খেলা, এ ধরনের কাজ পারস্পরিক সম্পর্কে উন্নতি ঘটায়। বাবর অসাধারণ এক বার্তা পাঠিয়েছে। আমি জানি না বিরাট এই বার্তার কোনো জবাব দিয়েছে কি না।’ আফ্রিদির মনে হয় না, কোহলি বাবরের এই পোস্টের কোনো জবাব দেবেন, ‘কোহলি যদি জবাব দেয়, এটা অনেক বড় একটা ঘটনা হবে। তবে আমার মনে হয় না কোহলির এই বার্তার কোনো জবাব দেবে।’

আজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গলে প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেছে পাকিস্তান। টেস্ট শুরুর আগে সংবাদ সম্মেলনে ওই টুইট নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল বাবরকে। বাবর যার ব্যাখ্যা দিয়েছেন সুন্দরভাবে, ‘খেলোয়াড় হিসেবে বলতে পারি, সব খেলোয়াড়ই এমন একটা পর্যায় অতিক্রম করে যখন তাঁর ফর্ম থাকে না। সবারই এমন হয়। তখন আপনার সমর্থনের দরকার পড়ে। আমি টুইট করেছি এটা ভেবেই, কোহলিকে সমর্থন দেওয়ার জন্য। ও অন্যতম সেরা একজন খেলোয়াড়।’

default-image

তবে বাবর জানেন, এই বাজে ফর্ম থেকে বেরিয়ে আসার জন্য কী কী করার দরকার, তা ভালোই জানা আছে কোহলির, ‘ও অনেক ক্রিকেট খেলছে। ও জানে, এমন পরিস্থিতি থেকে কীভাবে বেরিয়ে আসতে হয়। সময় লাগে, কিন্তু আপনি যদি সমর্থন দেন, তাহলে অবশ্যই ও আবারও ভালো খেলা শুরু করবে।’

ব্যাটিংয়ে বাজে সময় যাচ্ছে কোহলির। ২০১৯ সাল থেকে শতক নেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭৭ ইনিংস হয়ে গেল তিন অঙ্কে পৌঁছাতে পারেননি ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে চোটের কারণে খেলতে পারেননি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হাসেনি তাঁর ব্যাট। আউট হন ১৬ রানে। তার আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট মিলিয়ে মোট চার ইনিংসে কোহলির মোট সংগ্রহ ছিল ৪৩ রান।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন