আগের ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে তামিম পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পেছনে যুক্তি হিসেবে বলেছিলেন, ‘আমার কাছে সবচেয়ে যে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার মনে হয়, এখন আমাদের সুযোগ আছে একাদশের বাইরের খেলোয়াড়দের দেখার। পয়েন্টের খেলা হলে ওই সুযোগটা থাকে না। সিরিজ নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর আমি মনে করি অন্যদেরও সুযোগ দেওয়া উচিত। এ জন্য আমাকেও যদি এক–দুটি ম্যাচ না খেলতে হয়, সেটাও হতে পারে। এখন যদি বেঞ্চের শক্তি না দেখি, তাহলে দেখব কখন? তা ছাড়া হঠাৎ কেউ চোটে পড়লে হুট করে নতুন কাউকে দলে আনা কঠিন হয়। পরের ম্যাচে হয়তো এ রকম কোনো পরিবর্তন দেখতে পারেন।’

default-image

তবে শেষের ম্যাচের আগে টিম হোটেলে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় ডমিঙ্গো যা বললেন, তাতে তামিমের কথার সঙ্গে খুব একটা মিল নেই, ‘ব্যাপারটা সহজ নয় আসলে। আমি এনামুলকে খেলাতে চাই। কিন্তু সে ডানহাতি। আমাদের ব্যাটিং লাইন–আপে আসলে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান লাগবে, তাদের বোলিং লাইন-আপের বিপক্ষে। ফলে খুব বেশি পরিবর্তনের সুযোগ নেই। সে একজন ব্যাটসম্যান, যে এখনো ৫০ ওভারে খেলেনি (এ সফরে)। তবে সে ডানহাতি, আমরা দলে যত বেশি সম্ভব বাঁহাতি চাই। এটা নিয়ে ভেবে দেখব।’

সর্বশেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে রেকর্ড গড়ার পরও ৫০ ওভারের সংস্করণেই সুযোগ পাননি এখনো এনামুল। প্রথম দুই ম্যাচে খেলানো হয়েছে নাজমুল হোসেনকেই। এ ক্ষেত্রে অবশ্য তামিম আগে যে ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন, ডমিঙ্গোরটিও অমনই, ‘(এনামুল) বিজয় দারুণ করেছে, দলে এসেছে। আমি “ফেয়ার” থাকতে চাই কোচ হিসেবে। স্কোয়াডে যারা আসছে, তাদের অপেক্ষা করতে হবে। যেমন (ইয়াসির আলী) রাব্বী। সে অনেক দিন দলের সঙ্গে ঘুরেছে। এরপরই সুযোগ পেয়েছে। যারা আগে থেকে আছে, তাদের আগে সুযোগ পেতে হবে।’

পিচের কন্ডিশনের কারণে আবার বাড়তি একজন স্পিনার খেলাতে হচ্ছে। ফলে অন্য পেসারদের খেলানো কঠিন, কারণ তাদের জন্য উইকেটে কিছু নেই। করার চেয়ে বলা সহজ আসলে। কারণ, দলে ভারসাম্য রাখতে হবে, এ কন্ডিশনের জন্য উপযুক্ত। এখন যা বলছি, সেটি কাল সম্ভব না-ও হতে পারে।
রাসেল ডমিঙ্গো, বাংলাদেশের প্রধান কোচ

সর্বশেষ ম্যাচে তাসকিনের বাদ পড়াটিকে দুর্ভাগ্যজনক বলেছিলেন তামিম। কন্ডিশনের কারণে এ পেসারের একাদশে জায়গা হচ্ছে না, ডমিঙ্গোও বললেন সেটি, ‘তাসকিন অভাগা আসলে। এ কন্ডিশনে যারা কাটার করতে পারে, ডানহাতিদের থেকে বল করে নিতে পারে, তারাই বেশি উপযুক্ত—এটি বোঝা আসলে কঠিন কিছু না। ফলে আমরা দুজন বাঁহাতি পেসার খেলাচ্ছি। তবে সামনে তাসকিন অবশ্যই খেলবে।’

বোলারদের ক্ষেত্রেও দলে ভারসাম্যের কথাই আগে ভাবছেন ডমিঙ্গো, ‘পিচের কন্ডিশনের কারণে আবার বাড়তি একজন স্পিনার খেলাতে হচ্ছে। ফলে অন্য পেসারদের খেলানো কঠিন, কারণ তাদের জন্য উইকেটে কিছু নেই। করার চেয়ে বলা সহজ আসলে। কারণ, দলে ভারসাম্য রাখতে হবে, এ কন্ডিশনের জন্য উপযুক্ত। এখন যা বলছি, সেটি কাল সম্ভব না-ও হতে পারে।’

প্রথম দুই ম্যাচে যাঁরা খেলেছেন, তাঁদের বাইরে ওয়ানডে দলে আছেন তিন জন—ইবাদত হোসেন, তাইজুল ইসলাম ও এনামুল।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন