আইসিসিকে তাদের প্রেজেন্টেশন দিতে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছে আইওসি। এর মাধ্যমেই অলিম্পিকে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্তির বিষয়টির অগ্রগতি হয়। যদিও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে আগামী বছরের মাঝামাঝিতে।

ক্রিকেট ছাড়াও আরও আটটি খেলা লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে পর্যালোচনার জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকায় রাখা হয়েছে। বেসবল বা সফটবল, ফ্ল্যাগ ফুটবল, ল্যাকরোস, ব্রেক ড্যান্সিং, কারাতে, কিকবক্সিং, স্কুয়াশ ও মোটরস্পোর্ট রয়েছে এ তালিকায়।

অলিম্পিকে জায়গা পেতে হলে ক্রিকেটকে অন্যান্য ইভেন্টের সঙ্গে লড়তে হবে। যদিও তালিকায় রাখা ইভেন্টগুলোর মধ্যে কতগুলো নতুন খেলা আইওসি যোগ করতে পারবে, সেটা এখনো ঠিক হয়নি। গত ফেব্রুয়ারিতে আইওসি জানিয়েছিল, ২৮টি খেলা লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে থাকবে। পাশাপাশি সম্ভাবনাময় নতুন খেলাও যোগ করা হবে।

অলিম্পিকে ক্রিকেট যোগ করার সম্ভাবনা আরও বেড়েছে চলমান কমনওয়েলথ গেমসে খেলাটি থাকায়। কমনওয়েলথ গেমসে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। অংশ নিয়েছে আটটি দল। অলিম্পিকে অবশ্য নারীদের সঙ্গে পুরুষ ক্রিকেটও থাকবে।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী জিওফ অ্যালারডাইস বার্মিংহাম কমনওয়েলথ গেমসের ক্রিকেট ইভেন্ট নিয়ে বেশ সন্তুষ্ট। গত বছরের আগস্টে টোকিও অলিম্পিকের সময় আইসিসি ২০২৮ অলিম্পিকে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্তির জন্য তোড়জোড় শুরু করে। শেষ পর্যন্ত আইসিসি সফল হলে ক্রিকেটপ্রেমীদের দীর্ঘদিনের আশা পূরণ হবে।

আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে মুম্বাইয়ে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির অধিবেশন বসবে। ওই অধিবেশনেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে।