১৯৮৩ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজ খেলা শুরু করে ভারত। তারপর থেকে কালকের আগ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ন্যূনতম তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভারত কখনো স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করতে পারেনি। কাল রাতের জয়ে ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাঁদেরই মাটিতে প্রথমবারের মতো ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করল ভারত।

default-image

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়েছে দুই দল। ম্যাচ গড়িয়েছে শেষ বল পর্যন্ত। কিন্তু শেষ ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে ভারত। আগে ব্যাট করে ৩ উইকেটে ২২৫ রান তুলেছিল সফরকারি দল। দুবার বৃষ্টির সম্মুখীন হয় ভারতের ইনিংস।

২৪তম ওভার শেষে বৃষ্টির পর ম্যাচ নামিয়ে আনা হয় ৪০ ওভারে। ৩৬তম ওভার শেষে আবারও বৃষ্টি নামলে আর এগোয়নি ভারতের ইনিংস। জয়ের জন্য ৩৫ ওভারে ২৫৭ রানের লক্ষ্য পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বৃষ্টির কারণে ভারতের ওপেনার শুবমান গিল ৯৮ বলে ৯৮ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন। ভারতের হয়ে ওয়ানডেতে তাঁর আগে আরও পাঁচ ওপেনার নব্বইয়ের ঘরে অপরাজিত ছিলেন—কৃঞ্চমাচারি শ্রীকান্ত (৯৩*), সুনীল গাভাস্কার (৯২*), শচীন টেন্ডুলকার (৯৬*), বীরেন্দর শেবাগ (৯৯*) ও শিখর ধাওয়ান (৯৭*)।

ষষ্ঠ ওপেনার হিসেবে ভারতীয়দের এ তালিকায় নাম লেখালেন ম্যাচ ও সিরিজসেরা শুবমান গিল। ৭৪ বলে ৫৮ রান করেন অধিনায়ক ধাওয়ান। শ্রেয়াস আইয়ারের ব্যাট থেকে এসেছে ৩৪ বলে ৪৪ রানের ইনিংস। হেইডেন ওয়ালশ নেন ২ উইকেট।

রান তাড়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ওভারেই বড় ধাক্কা খায়। তিন বলের মধ্যে কাইল মেয়ার্স (০) ও শামারাহ ব্রুকসকে (০) তুলে নেন ভারতের পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। ১.৩ ওভারের মধ্যে ২ উইকেটে হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্কোরবোর্ডে তখনো রান যোগ করতে পারেনি। তৃতীয় উইকেটে শাই হোপ ও ব্রান্ডন কিং মিলে ৪৭ রানের জুটি গড়েন।

২২ রান করা হোপকে তুলে নেন যুজবেন্দ্র চাহাল। নিকোলাস পুরান ও কিং মিলে ২৭ রানের জুটিতে লড়ছিলেন, কিন্তু অক্ষর প্যাটেলের আর্ম বলে কিং (৪২) আউট হওয়ার পর ম্যাচে ভালোভাবেই এগিয়ে যায় ভারত।

৩২ বলে ৪২ রান করা অধিনায়ক পুরান এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে চেষ্টা চালিয়ে গেলেও কাজ হয়নি। ওভারপ্রতি গড়ে ১০ রানেরও বেশি দরকার ছিল ক্যারিবিয়ানদের। ২২তম ওভারে দলীয় ১১৯ রানে পুরান আউট হওয়ার পর জয়ের আশা নিভে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ২৬ ওভারে ১৩৭ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৪ উইকেট নেন ভারতের স্পিনার চাহাল।

জয়ের পর শুবমান গিল জানিয়েছেন, শতক না পেলেও নিজের পারফরম্যান্সে তিনি সন্তুষ্ট, ‘এটা না হলেও সিরিজে নিজের পারফরম্যান্সে আমি খুশি। তবে আশা ছিল আরও এক ওভার পাব, তাহলে শতকটা হয়ে যেত।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন