জিম্বাবুয়ে টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে ১১তম। বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে খেলা তুলনামূলকভাবে ছোট দলগুলোর একটি। তাদের বিপক্ষে হারে পাকিস্তানের সেমিফাইনাল স্বপ্ন এখন খাদের কিনারায়। বাকি ম্যাচগুলোয় এখন শুধু পাকিস্তানের জিতলেই চলবে না, ভারতের জয় আর জিম্বাবুয়ের হারের প্রার্থনাও করতে হবে।

তাই মানসিকভাবে বাবর আজমের দল অনেকটাই ভেঙে পড়েছে বলেই ধারণা। তবে রউফের দাবি দলের মনোবল আছে আগের মতোই, ‘আমরা যেভাবে শুরু করতে চেয়েছিলাম সেভাবে হয়নি। তবে আমরা এখনো আত্মবিশ্বাসী। আমরা একসঙ্গে বসে ভুলগুলো চিহ্নিত করেছি।’

২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব থেকেই  বিদায় নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নামিবিয়া হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। ইংল্যান্ড হেরেছে আয়ারল্যান্ডের কাছে। আর গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তান হেরেছে জিম্বাবুয়ে কাছে। এবারের বিশ্বকাপকে তাই অনেকেই বলছেন অঘটনের বিশ্বকাপ। কোনো দলকেই হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। রউফও সে কথাই মনে করিয়ে দিয়েছেন, ‘বিশ্বকাপে কোনো ছোট-বড় দল নেই। এই টুর্নামেন্টে যারাই খেলছে, তারাই চ্যাম্পিয়ন হতে এসেছে।’

পার্থে কাল বেলা ১টায় নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান।