বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আর্জেন্টিনার ঘরোয়া ফুটবলে আজ ম্যাচ শুরুর আগে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হবে। মাঠে খেলোয়াড়েরা ‘১০’ সংখ্যার আদলে দাঁড়াবেন—ম্যারাডোনার বিখ্যাত ১০ নম্বর জার্সিকে সম্মান জানিয়ে। বুয়েনস এইরেসের যে বস্তিতে ম্যারাডোনা বেড়ে উঠেছেন সেখানেও বিশেষভাবে স্মরণ করা হবে কিংবদন্তিকে।

শুধু আর্জেন্টিনা কেন, ইতালির নেপলস শহরও প্রস্তুত ম্যারাডোনার মৃত্যুর এক বছর পূর্তি স্মরণীয় করে রাখতে। সেখানকার ক্লাব নাপোলিকে বড় দলগুলোর কাতারে তুলে এনেছিলেন ম্যারাডোনা। তাঁর প্রতি নেপলসবাসীর ভালোবাসা সব সময়ই অতুলনীয়।

default-image

আজ যেমন সেখানে ম্যারাডোনার দুটি মূর্তি উন্মোচন করা হবে। এদিকে আর্জেন্টাইন ফুটবল লিগ এরই মধ্যে শ্রদ্ধা জানিয়েছে ম্যারাডোনাকে। তাঁর জীবন নিয়ে বানানো ভিডিওচিত্র বলা হয়, ‘আমরা বাকি জীবন আপনাকে মিস করব।’

গত বছর নভেম্বরে আজকের দিনে ৬০ বছর বয়সে মারা যান ম্যারাডোনা। তাঁর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। এ ছাড়াও নানারকম শারীরিক সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মাদকাসক্ত হয়ে পড়ায় কিডনি, লিভার নিয়ে জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি।

আর্জেন্টাইনরা তাঁর মৃত্যুর শোক পারেনি। বুয়েনস এইরেসের রাস্তাঘাট থেকে টিভি—কোথায় নেই ম্যারাডোনা! তাঁর দেয়ালচিত্র, মূর্তির অভাব নেই।

default-image

বুয়েনস এইরেস ছাড়াও আর্জেন্টিনার অন্যান্য শহরেও মনে রাখা হয়েছে ম্যারাডোনাকে। ‘ডিয়েগো চিরকালীন’ কিংবা ‘চিরকালের ১০’—এসব দেয়ালচিত্র প্রায় সব শহরে দেখা যায়। বুয়েনস এইরেসে ম্যারাডোনার একটি স্থাপত্যে তাঁর শরীরে ডানাযুক্ত করে ‘দেবতা’র আসন দেওয়া হয়েছে। যেন তিনি পৃথিবীর মাটিতে নেমে এসেছেন এবং বিশ্বকাপে চুমু খাচ্ছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমও ছেয়ে গেছে ম্যারাডোনার প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলিতে। ফুটবলের বাইরের মানুষও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন এই কিংবদন্তিকে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন