জোড়া গোল করেও দলকে জেতাতে পারলেন না নেইমার
জোড়া গোল করেও দলকে জেতাতে পারলেন না নেইমারছবি: রয়টার্স

নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে, মাউরো ইকার্দি, লিয়ান্দ্রো পারেদেস, আনহেল দি মারিয়া—এই তারকাদের নিয়েও পুরো ৩ পয়েন্ট পেল না নেইমারের দল। অথচ তাঁদের নিয়ে দুনিয়ার যেকোনো দলকেই বলেকয়ে হারানো যায়। কিন্তু কাল পিএসজি ফরাসি লিগের পয়েন্ট তালিকার নিচের দিকে থাকা লরিয়েঁর সঙ্গে পেরে ওঠেনি।

নেইমার-এমবাপ্পেদের হার ৩-২ গোলে। অথচ এ ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন নেইমার। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। নতুন কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর অধীনে এটি পিএসজির প্রথম হার।

লরিয়েঁ শুরুতেই পিএসজির বুকে কাঁপন ধরিয়েছিল। ফরাসি ডিফেন্ডার প্রেসনেল কিমপেম্বে ও পর্তুগিজ মিডফিল্ডার দানিলো পেরেইরার ভুলে লরিয়েঁকে এগিয়ে দেন ফরাসি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার লরেঁ আবেরগেল। তবে পিএসজিকে বেশিক্ষণ পিছিয়ে থাকতে দেননি নেইমার। প্রথমার্ধের ঠিক শেষ দিকে পেনাল্টি থেকে গোল করে সমতা ফেরান ব্রাজিলীয় তারকা।

default-image
বিজ্ঞাপন

৫৮ মিনিটে আরও এক পেনাল্টি পেয়ে ২-১-এ এগিয়ে যায় পিএসজি। এই গোলও নেইমারের। তবে লরিয়েঁ ছেড়ে কথা বলেনি। ৮০ মিনিটে দুই ফরোয়ার্ড তেরেম মোফি ও ইয়োয়ানে উইসার যুগলবন্দীতে সমতায় ফেরে লরিয়েঁ। গোল করেন উইসা। শেষ মিনিটে গোল করে দলকে স্মরণীয় এক জয় এনে দেন মোফি।

পুরো ম্যাচেই পিএসজির সঙ্গে সমানে টেক্কা দিয়েছে লরিয়েঁ। গোলমুখে শট নিয়েছে ১৬টি, যেখানে নেইমাররা নিয়েছেন আরও দুটি কম। বল দখলের লড়াইয়ে অবশ্য নেইমাররা এগিয়ে ছিলেন অনেক বেশি, ৬৫ শতাংশ সময় বল নেইমার-এম্বাপ্পেদেরই পায়ে ছিল।

পিএসজির পরাজয়ে ২২ ম্যাচে ৪৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই থাকল লিল। ওদিকে ৩ পয়েন্ট কম নিয়ে পিএসজির অবস্থান ৩ নম্বরে। দ্বিতীয় স্থানে আছে অলিম্পিক লিওঁ। তাঁদের পয়েন্ট পিএসজির চেয়ে ১ বেশি। ম্যাচটা জিতলে নেইমাররা একদম শীর্ষে চলে যেতেন।

লরিয়েঁ সেটি হতে দিল কোথায়!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন