বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আর্জেন্টিনায় তাঁর ডাকনাম ‘লা আরানা’। বাংলায়, মাকড়সা। মাঠে পাসের জাল বিছানো হয়তো তাঁর কাজ নয়, তবে ফরোয়ার্ডদের যে কাজ, সেই গোল করা আর করানোয় আর্জেন্টিনার লিগে সম্ভবত এই মুহূর্তে আলভারেজ অপ্রতিদ্বন্দ্বী। এই মৌসুমে ১৭ ম্যাচে গোল করেছেন ১৭টি, করিয়েছেন আরও ৬টি।

লিওনেল মেসি গত আগস্টে পিএসজিতে চলে যাওয়ার পর থেকে আক্রমণে ধারহীন হয়ে পড়া বার্সা এখন আলভারেজকে পেতে আগ্রহী, এমনই জানাচ্ছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এএস, মার্কা ও স্পোর্ত। বার্সেলোনার কয়েকজন কর্মকর্তা দিন কয়েক আগে আর্জেন্টিনায় গেছেন।

দলবদলের গুঞ্জনের ক্ষেত্রে বিশ্বস্ত হয়ে ওঠা ইতালিয়ান সাংবাদিক ফাব্রিজিও রোমানোও জানাচ্ছেন, আলভারেজকে পেতে রিভার প্লেটের সঙ্গে বার্সেলোনার কথাবার্তা প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে। আর্জেন্টাইন তরুণের সঙ্গে ব্যক্তিগত চুক্তিতে এরই মধ্যে বার্সা সম্মত হয়ে গেছে বলেও জানাচ্ছেন রোমানো।

default-image

আলভারেজকে এই জানুয়ারিতেই পেতে চায় বার্সা। আর তাঁকে পেতে বার্সার প্রায় ২ কোটি ইউরো খরচ হবে বলে শোনা যাচ্ছে। রোমানো জানিয়েছেন, রিভার প্লেটে আলভারেজের চুক্তিতে ‘রিলিজ ক্লজ’, অর্থাৎ রিভার প্লেটের বিক্রির অনিচ্ছা সত্ত্বেও আলভারেজকে কিনতে চাইলে কোনো ক্লাবকে যে অর্থ রিভার প্লেটকে দিতেই হবে, এর পরিমাণ ২ কোটি ইউরো।

ইউরোপের বড় ক্লাবগুলোর মধ্যে বার্সারই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ, স্পেনের আরেক বড় ক্লাব আতলেতিকো মাদ্রিদ, ইতালির চার ক্লাব ইন্টার মিলান, এসি মিলান, জুভেন্টাস, ফিওরেন্তিনা, জার্মানির বায়ার লেভারকুসেনও আগ্রহী ছিল বলে শোনা গেছে। রোমানো জানাচ্ছেন, বার্সার পাশাপাশি আলভারেজকে পেতে এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছে ইন্টার মিলান।

রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে অবশ্য একটা ইতিহাস আছে আলভারেজের। ১১ বছর বয়সে রিয়াল মাদ্রিদে ‘ট্রায়ালে’ এসেছিলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। কিন্তু প্রশাসনিক জটিলতায় তখন মাদ্রিদের কুলীনদের যুব দলে যোগ দেওয়া হয়নি আলভারেজের।

আর্জেন্টাইন সংবাদপত্র ইনফোবেতে এ নিয়ে লিখেছিল, ‘মাদ্রিদে এক মাস ছিলেন আলভারেজ। সেখানে বিশ্বের অনেক প্রতিভাবান কিশোরই ছিল, কিন্তু ও অন্যদের চেয়ে অনেক এগিয়ে ছিল।’

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্ত জানিয়েছে আলভারেজের এমন ডাকনামের কারণ। বল পায়ে তাঁর দক্ষতার কারণে আলভারেজ তাঁর শৈশবের ক্লাব আতলেতিকো কালচিনে ‘মাকড়সা’ ডাকনামটা পেয়েছিলেন। কেন? সেটি জানিয়েছেন আলভারেজের ভাই, ‘বল পায়ে ওকে দেখে মনে হতো, ওর পা দুটি নয়, তার চেয়েও বেশি।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন