বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এক ভিডিও বার্তায় বিষয়টি জানিয়েছেন জাতীয় দল ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও বাফুফে সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ। তিনি বলেন, ‘ইন্দোনেশিয়ায় গিয়ে দুটি ম্যাচ খেলার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। ইন্দোনেশিয়া থেকে জানানো হয়েছে, খেলোয়াড় ও দলীয় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দুই ডোজ টিকা দেওয়া থাকতে হবে। বর্তমানে যে খেলোয়াড় তালিকা করা হয়েছে, সেখানে ১৫ জনের দুই ডোজ টিকা দেওয়া আছে। সাতজনের এক ডোজ দেওয়া আছে ও ছয়জনের কোনো টিকা দেওয়া নেই। এ কারণে ম্যাচ দুটি খেলা সম্ভব হচ্ছে না।’

default-image

খেলার দুনিয়ায় করোনার দুই ডোজ টিকা এখন বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে খেলোয়াড়দের জন্য। পৃথিবীর অনেক দেশেই বিদেশি নাগরিকেরা করোনার দুই ডোজ টিকা না থাকলে যেতে পারছেন না। বাংলাদেশ সরকারের টিকাকরণ কর্মসূচিতে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের জন্য আলাদা শ্রেণি আছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সরকারের কাছ থেকে টিকা এনে প্রায় সব ক্রিকেটারকেই টিকা দিয়েছে। বাফুফেও সরকারের কাছ থেকে টিকা সংগ্রহ করেছিল। কিন্তু তারপরও কিছু খেলোয়াড় কেন টিকা নিলেন না, সেটি অবশ্য জানা যায়নি।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন