এএফসির নজর কেড়ে নতুন করে আলোচনায় সাদ
এএফসির নজর কেড়ে নতুন করে আলোচনায় সাদছবি: প্রথম আলো

২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে আলোচনায় বাংলাদেশের ফরোয়ার্ড সাদ উদ্দিন। ওই সময় কলকাতায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ে ভারতের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্রয়ের ম্যাচে বাংলাদেশের গোলটি এসেছিল সাদের হেড থেকে।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এখন পর্যন্ত ৪ ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের যে এক পয়েন্ট, সেটি ওই ম্যাচের ড্রয়ের কল্যাণেই। সাদ নতুন করে আবার আলোচনায় এসেছেন এএফসির নজর কেড়ে।

বিজ্ঞাপন

নভেম্বরে আন্তর্জাতিক বিরতিতে এশিয়াজুড়ে বসেছিল আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের মেলা। সেখান থেকে এএফসি খুঁজে নিয়েছে জাতীয় দলের হয়ে খেলা সপ্তাহ সেরা ১০ খেলোয়াড়কে। সংক্ষিপ্ত সে তালিকায় আছেন তরুণ সাদ।

মুজিব বর্ষ সিরিজে নেপালের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। প্রথমটিতে ২-০ গোলের জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করে সিরিজ জিতে নেয় বাংলাদেশ। ২-০ গোলের জয়ের ম্যাচে সাদের ক্রস থেকেই দুর্দান্ত একটি গোল করেছিলেন নাবিব নেওয়াজ।

ডান প্রান্তে প্রতিপক্ষের রক্ষণকে বোকা বানিয়ে ক্রস দিয়েছিলেন সাদ। খুব বেশি জায়গা পাননি, তবু সে অবস্থাতেই দারুণ এক ভলিতে গোল করেছেন নাবিব। গোল করা ছাড়া সেদিন সাদের পাসগুলোও ছিল নিখুঁত।

সেই পারফরম্যান্সের মূল্যায়ন করেছে এএফসি। এএফসির ওয়েবসাইট বলছে, সে ম্যাচে সাদের ৯২ শতাংশ পাসই সঠিক ছিল। সব কিছু মিলিয়ে সাদ চলে এসেছে সংক্ষিপ্ত তালিকায়।

বিজ্ঞাপন

দর্শকদের ভোটে সেরার লড়াইয়ে সাদের প্রতিপক্ষরা ইরাকের মোহানাদ আলি ও ইব্রাহিম বায়েস, আরব আমিরাতের আলি মাবকুত, সৌদি আরবের আবদুল্লাহ আল হামদান, বাহরাইনের মোহামেদ আল রোমাইহি, দক্ষিণ কোরিয়ার হুয়াং জু, জর্ডানের মৌসা আল তামারি, ইরানের কাভি রিজিহ ও ভাহিদ আমিরি। এখান থেকেই বেছে নেওয়া হবে সপ্তাহ সেরা খেলোয়াড়কে।

কয়েক দিন আগে এএফসি কাপের দশক সেরা ১৬ গোলের তালিকায় উঠে এসেছিল সাদেরই আবাহনী লিমিটেডের সতীর্থ সোহেল রানার গোল। শেষ আটে ওঠার লড়াইয়ে মালদ্বীপের আলী আশফাকের কাছে ভোটের লড়াইয়ে হেরেছেন সোহেল।

মন্তব্য পড়ুন 0