এখনো চোখ রাঙানি দিয়ে যাচ্ছে করোনা। তবে এই ক’দিন আগেও করোনা যেভাবে সবকিছু থমকে দিয়েছিল, এখন ব্যাপারটা ঠিক তেমন নয়। সবকিছু স্বাভাবিক তো হয়েছেই, খেলাধুলাও শুরু হয়ে গেছে বিশ্বব্যাপী। বাংলাদেশে কিছুদিন আগে ক্রিকেট ঘরোয়াভাবে শুরু হলেও ফুটবল এখনো মাঠে নেই। তবে এ মাসেই ফুটবল মাঠে ফিরছে নেপালের বিপক্ষে দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ দিয়ে। করোনাকালে দেশের ক্রীড়াঙ্গন আজ প্রথম বিদেশি দল হিসেবে স্বাগত জানিয়েছে নেপাল জাতীয় ফুটবল দলকে।

default-image

চার্টার্ড ফ্লাইটে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা এসে পৌঁছেছে নেপাল। ৩৫ সদস্যের দলে খেলোয়াড় ২৫ জন। বাংলাদেশে তাদের দুই থেকে তিন দিন কোয়ারেন্টিনে রাখতে চাচ্ছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। করোনার ভয়াবহতা শুরু হওয়ার আগে বাংলাদেশে সবশেষ বিদেশি দল হিসেবে খেলে গিয়েছে মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাব। ১১ মার্চ এএফসি কাপে বাংলাদেশের বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে খেলেছে তারা।

বিজ্ঞাপন

আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর দুটি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ও নেপাল। বাংলাদেশের মতোই নেপালের ফুটবলও বন্ধ রেখেছে করোনা। বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ফুটবলে ফিরবে নেপালও। সে হিসেবে একই জায়গায় দাঁড়িয়েই পরস্পরের মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল।

default-image

ঢাকায় আসার আগে করোনায় এলোমেলো নেপাল দল। দলের সাত খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত। অনুশীলন শুরুর আগেই করোনা পরীক্ষায় ছিটকে যান পাঁচ ফুটবলার। ঢাকা রওনা হওয়ার দুদিন আগে আবার পরীক্ষা হলে শনাক্ত হন দুজন। এতে ৩০ জনের ক্যাম্প থেকে ছিটকে গিয়েছেন সাত ফুটবলার। এ ছাড়া সবশেষ আক্রান্ত দুই খেলোয়াড়ের দুই রুমমেটকেও দেশে রেখে এসেছে তারা। সব মিলিয়ে দলের অবস্থা খুব একটা ভালো নেই—এটা বলাই যায়।

মন্তব্য পড়ুন 0