বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন
বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনফাইল ছবি: প্রথম আলো

আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর নেপালের বিপক্ষে ঢাকায় দুটি ফিফা প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় দলের আবাসিক ক্যাম্প। স্থানীয় কোচ মাসুদ কায়সার ও গোলাম জিলানির অধীনে বর্তমানে ১৮ খেলোয়াড় নিয়ে চলছে অনুশীলন।

বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলাররা ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন আজ। বৃহস্পতিবার ঢাকায় এসে ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার কথা প্রধান কোচ জেমি ডে ও অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার।

বিজ্ঞাপন

নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে করোনা পরবর্তী নতুন স্বাভাবিক জীবনের ফুটবলে ফিরতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। জামাল ভূঁইয়ারা শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন চলতি বছরের জানুয়ারিতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে। করোনার কারণে মার্চ থেকে বন্ধ ঘরোয়া ফুটবলও। সব মিলিয়ে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই মাঠে ফিরতে যাচ্ছে দেশের ফুটবল।

তাই জয়-পরাজয় নিয়ে না ভেবে ফুটবলের ফেরার দিকেই বেশি নজর বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের, ‘আমাদের প্রথম কাজ হলো মাঠে খেলা ফেরানো। অনেকেই জিজ্ঞাসা করে, জিতবেন না হারবেন। জেতা-হারা এখনই যদি চিন্তা করি! ৬ মাস ধরে ফুটবল নাই মাঠে। আমাদের প্রথম উদ্দেশ্য হলো ফুটবলটা মাঠে নামানো।’ কয়েক দিন আগে খেলায় ফেরার গুরুত্বের কথা বলেছিলেন জাতীয় দলের কোচ জেমি ডেও।

default-image

তবে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী জাতীয় দলের মিডফিল্ডার সোহেল রানা। সাম্প্রতিক সময়ে নেপাল দলগতভাবে এগিয়ে গেলেও ব্যক্তিগত কৌশলে নেপালের খেলোয়াড়দের চেয়ে বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা এগিয়ে বলে মনে করেন তিনি, ‘দলগতভাবে নেপাল ভালো খেলছে। তবে ব্যক্তিগত ভাবে তুলনা করলে নেপালের ফুটবলারদের চেয়ে আমরা এগিয়ে আছি। গত বছর নেপালের ক্লাবের সঙ্গে এএফসি কাপে খেলে আমার কাছে এটাই মনে হয়।’

দুই দিন আগে এএফসি কাপের দশক সেরা গোলের মনোনয়ন পেয়েছে আবাহনী লিমিটেডের এ মিডফিল্ডারের একটি গোল। নেপালের বিপক্ষে বাংলাদেশ শেষ মুখোমুখি হয়েছিল ২০১৮ সালে সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে। ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছিল বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দলের ম্যানেজার নিয়ে বিতর্ক হতে দেখা গিয়েছে। এবার বাফুফের নির্বাহী কমিটির সদস্যদের বাইরে থেকে ম্যানেজার নির্বাচনের ইঙ্গিত দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি। সর্বশেষ জাতীয় দলের ম্যানেজার ছিলেন বাফুফে সদস্য ও আবাহনী ফুটবল দলের ম্যানেজার সত্যজিত দাস রুপু।

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়কের আগে ম্যানেজার পদে ছিলেন নির্বাহী কমিটির আরেক সদস্য ও মোহামেডান ফুটবল দলের সাবেক ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু। মাঝে কিছুদিন দায়িত্বে ছিলেন জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ও বাফুফে সদস্য ইকবাল হোসেন।

এবার বাফুফে নির্বাহী কমিটির বাইরে থেকে ম্যানেজার নিয়োগ দিতে চান কাজী সালাউদ্দিন, ‘ম্যানেজার নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি। আমরা একজন পেশাদার ম্যানেজার চাই। আমাদের টেকনিক্যাল ম্যানেজারের দরকার নেই। জাতীয় দল নির্বাচন করেন কোচ। সে জন্য আমরা চিন্তা করছি পেশাদার এক্সিকিউটিভ ম্যানেজার রাখব। আমার ব্যক্তিগত মতামত হলো, আমাদের বোর্ডের (ফেডারেশনের) কাউকে দরকার বলে আমি মনে করি না। আমার মনে হয় না বোর্ড (ফেডারেশন) থেকে কেউ থাকবে।’

মন্তব্য পড়ুন 0