কাল হতাশাই সঙ্গী ছিল হরলান্ডের।
কাল হতাশাই সঙ্গী ছিল হরলান্ডের। ছবি: রয়টার্স

ক্লাব ক্যারিয়ারে মুড়ি–মুড়কির মতো গোল করে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটির মতো ক্লাবগুলোর মাথা ঘুরিয়ে দিয়েছেন। আরলিং হরলান্ডের সঙ্গে আছেন রিয়াল মাদ্রিদের মিডফিল্ডার মার্টিন ওডেগার্ড, এসি মিলানের ইয়েন্স পিটার হেগ, লাইপজিগের আলেকসান্দার সরলথ, সেল্টিকের ক্রিস্টোফার আজের ও শেফিল্ডের স্যান্ডার বার্জ।

সেই হরলান্ডই জাতীয় দলের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে জ্বলে উঠতে পারছেন না। এমন নয় যে জাতীয় দলের হয়ে গোল নেই তাঁর। ৯ ম্যাচে ৬ গোল করেছেন ঠিকই। কিন্তু দলের যখন সবচেয়ে বেশি গোল প্রয়োজন, তখনই যদি না করতে পারেন, তাহলে সেসব গোল দিয়ে কী হবে? এখন সেটাই হচ্ছে হরলান্ডের। গতকাল তুরস্কের বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরে বসেছে নরওয়ে। দলকে জেতানো তো দূর, ড্র-ই করাতে পারেননি হরলান্ড, গোলহীন থেকেছেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

গ্রুপে আছে নেদারল্যান্ডস, তুরস্ক, লাটভিয়া, জিব্রাল্টার, মন্টেনেগ্রোর মতো দল। নেদারল্যান্ডস ছাড়া কোনো দলই তেমন কঠিন নয়। বিশেষ করে নিজের দলে যদি আর্লিং হরলান্ডের মতো বিশ্বকাঁপানো স্ট্রাইকার থাকে, তখন এসব দলকে ভয় করার মতো কারণ থাকে না। অন্তত কাগজ-কলমে তো বটেই।

সেই যে ১৯৯৮ সালে সর্বশেষ বিশ্বকাপের স্বাদ পেয়েছিল নরওয়ে, এরপরের পাঁচটি বিশ্বকাপে খেলার সৌভাগ্য হয়নি তাদের। তেমন শক্তিশালী দলও ছিল না। কিন্তু এবার তা নয়। দলে আছেন আর্লিং হরলান্ডের মতো তারকা, দুদিন আগে যাঁর দাম ১৮ কোটি ইউরো বা প্রায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা নির্ধারণ করেছে তাঁর ক্লাব বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। সেই হরলান্ড কাল গোল পেলেন না।

শুধু এই ম্যাচেই যে গোল করতে পারলেন না, তা নয়। জিব্রাল্টারের মতো পুচকে দলের বিপক্ষেও গোল আসেনি আগের ম্যাচে। তুরস্কের কাছে হেরে নরওয়েও নিজের গ্রুপে খাবি খাচ্ছে চতুর্থ স্থানে। যেখানে বিশ্বকাপের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখার জন্য অন্তত গ্রুপের দ্বিতীয় অবস্থানে থাকতেই হবে তাদের।

default-image

তাহলে কি দলে ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকার হরলান্ডকে পেয়েও কাজ হবে না নরওয়ের? দুই যুগের অপেক্ষা আরও দীর্ঘায়িত হবে? এবারও খেলা হবে না বিশ্বকাপ? শঙ্কা জেগেছে।

গত রাতে তুর্কির বিপক্ষে জোড়া গোল করেছেন গ্যালাতাসারাইয়ের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার ওজান তুফান। একটি গোল করেছেন লেস্টার সিটির সেন্টারব্যাক কাগলার সয়ুঞ্জু। ম্যাচ জিতে দুই ম্যাচে পূর্ণ ছয় পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থানে জাঁকিয়ে বসেছে তুরস্ক। আগের ম্যাচে গ্রুপ ফেবারিট নেদারল্যান্ডসকেও হারিয়ে চমক সৃষ্টি করেছিল তারা।

হরলান্ডদের পরের ম্যাচ পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা মন্টেনেগ্রোর বিপক্ষে। সে ম্যাচে যদি এই স্ট্রাইকার জ্বলে উঠতে পারেন, নরওয়ে উঠে যাবে দ্বিতীয় স্থানে। দুই ম্যাচের গোলহীনতা কাটিয়ে হরলান্ড জাতীয় দলের জার্সিতে গোলের দেখা পান কি না, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

ওদিকে গত ম্যাচে তুরস্কের বিপক্ষে হেরে বসা নেদারল্যান্ডস ফর্মে ফিরেছে লাটভিয়াকে হারিয়ে। ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে দলটার হয়ে গোল করেছেন ফেইনুর্দের উইঙ্গার স্টিভেন বের্ঘুইস ও সেভিয়ার স্ট্রাইকার লুক ডি ইয়ং।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন