default-image

এনজো ও তাঁর সঙ্গী কারেন গনসালভেস গতকাল ইনস্টাগ্রামে তাঁদের মেয়ের ছবি দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ আগে থেকেই সন্তানের আগমনী বার্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন এনজো। ২০১৮ সাল থেকে ভেনেজুয়েলার মডেল গনসালভেসের সঙ্গে সম্পর্ক এনজোর। নিজেদের সম্পর্ক আড়ালে রাখতে পছন্দ করেন দুজন। ২০২০ সালে বাগদানও হয়ে গেছে দুজনের। করোনার সংক্রমণের কারণে বিয়ের তারিখ পিছিয়ে গেছে। এর মধ্যেই কাল নিজেদের প্রথম সন্তানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলেন দুজন।

default-image

১৯ মে জন্ম নেওয়া মেয়ের ছবি দিয়ে দুজন ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘আমাদের সিয়াকে স্বাগত, আমাদের রাজকন্যা।’ এই পোস্টে গিয়ে ভালোবাসা জানিয়েছেন রিয়ালের তারকা মার্সেলো, ইসকো ও লুকা মদরিচরা।

রিয়ালের একাডেমিতে বেড়ে উঠলেও এনজোর ক্যারিয়ার প্রত্যাশিত গতিতে এগোয়নি। রিয়াল মাদ্রিদের যুব দল কাস্তিয়ার পর আলাভেস, রায়ো মায়াহোন্দা, লুজেন স্পোর্ট, দেপোর্তিভো আভেস, আলমেরিয়া হয়ে এখন ফ্রান্সে আছেন। স্প্যানিশ বিভিন্ন ক্লাবে ধারে কাটানো ২৭ বছর বয়সী এনজো এখন ফ্রেঞ্চ লিগের দ্বিতীয় স্তরের ক্লাব রোদে অ্যাভেরোন ফুটবল ক্লাবে খেলেন।

default-image

এনজো জিদানের বড় ছেলে। ফরাসি কিংবদন্তির চার সন্তানই ছেলে। মেজ ছেলে লুকা জিদান (২৪) গোলকিপার, খেলছেন স্প্যানিশ ক্লাব রায়ো ভায়েকানোতে। তৃতীয় ছেলে থিওর বয়সও হয়ে গেছে ২০ বছর, বাবার মতো মিডফিল্ডেই খেলেন। তবে এখনো রিয়ালের যুব দলেই আছেন, গত মৌসুমে প্রথম সুযোগ পেয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ কাস্তিয়ায়। ছোট ছেলে এলিয়াজ জিদানের বয়স ১৬, রিয়াল মাদ্রিদের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলছে লেফটব্যাক হিসেবে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন