দৃশ্যপটে মেসির বাবা, আজই কি সিদ্ধান্ত?

বার্সেলোনায় পৌঁছেই সমর্থকদের বিক্ষোভের মুখে মেসির বাবা হোর্হে
বার্সেলোনায় পৌঁছেই সমর্থকদের বিক্ষোভের মুখে মেসির বাবা হোর্হেছবি: রয়টার্স
বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে স্পেনের পত্রিকা মুন্দো দেপোর্তিভোর মাধ্যমে শোনা গিয়েছিল, লিওনেল মেসির বাবা ও মুখপাত্র হোর্হে মেসির সঙ্গে আলোচনায় বসতে আগ্রহী বার্সা সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। ছেলে তো নারাজ, বাবার সঙ্গে কথা বলে যদি কোনো গতি করা যায় আর কি!

বৈঠকটি হবে আজ বুধবার, এমনটাই জানা গিয়েছিল। সে উদ্দেশ্যে আজ একটা ব্যক্তিগত জেটে চড়ে আর্জেন্টিনা থেকে বার্সেলোনায় এসেছেন হোর্হে। আর্জেন্টিনার স্থানীয় সময় দুপুর সোয়া একটায় যাত্রা শুরু করেন হোর্হে। এর মধ্যেই বার্সেলোনার বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেছে মেসির বাবার জেট। নেমেই নিজের ফ্ল্যাটে চলে গিয়েছেন হোর্হে। সেখান থেকে হয়তো বার্তোমেউর সঙ্গে আলোচনা করার জন্য বার্সেলোনার কার্যালয়ে যাবেন তিনি। আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অনুষ্ঠিত হবে সেই বৈঠক। বিমানবন্দরে নেমে উপস্থিত সাংবাদিকদের কিছু বলতে রাজি হননি ভদ্রলোক।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লিওনেল মেসি হয়তো শেষ পর্যন্ত থেকে যাবেন—এমন একটা আশার সলতে টিমটিম করে জ্বলছিল বার্সেলোনায়। কিন্তু সেই সলতেটা গত সোমবার এক ফুৎকারে নিভে গেছে যেন। অনুশীলন শুরুর আগে সোমবার ফিটনেস পরীক্ষা ছিল বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের। ছিল কোভিড-১৯ পরীক্ষাও। এর কোনোটিই করাননি মেসি। যাননি অনুশীলনেও। যার মানে বার্সেলোনায় থাকার কোনো ইচ্ছাই আর অবশিষ্ট নেই!

পিসিআর পরীক্ষা করানোর তারিখ আগেই নির্দিষ্ট করা ছিল। সেই দিন আসার আগেই মেসি বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষকে একটি প্রস্তাব দিয়েছিলেন—তাঁর ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয় তা নিয়ে বার্সার আইনজীবীদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান মেসির আইনজীবীরা। কিন্তু বার্সেলোনা মেসির সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়। এরপরই মেসি করোনা পরীক্ষা ও দলের অনুশীলনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মেসির এই সিদ্ধান্তেই হয়তো বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষ বুঝে গেছে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ন্যু ক্যাম্পে থাকার কোনো ইচ্ছাই নেই। এ কারণেই হয়তো আলোচনা করবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন বার্সেলোনার সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। তবে মেসির আইনজীবীদের সঙ্গে নয়, বার্তোমেউ আলোচনায় বসতে চান মেসির বাবা হোর্হে মেসির সঙ্গে।

বার্সেলোনা এর আগে জানিয়েছিল, মেসিকে যদি কোনো ক্লাব কিনতে চায় তাহলে তাঁর রিলিজ ক্লজের ৭০ কোটি ইউরো অবশ্যই দিতে হবে। তবে স্পেনের লা রিওহা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ও লা রিওহা সালিস আদালতের আইনজীবী হুয়ান র‍্যামন লিবানা সম্প্রতি মেসির রিলিজ ক্লজ নিয়ে অন্য এক তথ্য দিয়েছেন। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কা ওই আইনজীবীর বরাত দিয়ে লিখেছে, মেসির চুক্তির শেষ বছরে এসে রিলিজ ক্লজের শর্তটি আর কার্যকর থাকার কথা নয়! অন্য দিকে স্পেনের আরেক ক্রীড়া দৈনিক এএস লিখেছে, এত সহজে বার্সেলোনা মেসিকে ছাড়বে না। এই মুহূর্তে দুই পক্ষের সমঝোতায় পৌঁছানোর বিষয়টিও কঠিন মনে করছে তারা।

সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে ফুটবল বিশ্ব তাকিয়ে আছে আজকের বৈঠকের দিকে। মেসির বাবা হোর্হে মেসি ও বার্সেলোনার সভাপতি বার্তোমেউয়ের বৈঠকের পর কোনো একটা সমাধান হয়তো বেরিয়ে আসবে!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন